এম.মনছুর আলম,চকরিয়া :
চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়কের চকরিয়ায় যাত্রীবাহি বেপরোয়া গতির মারছা পরিবহন গাড়ির ধাক্কায় রাকিবুল ইসলাম (২০) নামে মেধাবী এক কলেজ ছাত্র নিহত হয়েছে।
রোববার দিবাগত রাত দেড়টার দিকে চট্টগ্রাম পার্কভিউ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান। এর আগে  রোববার দুপুর দেড়টার দিকে চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়ক সংলগ্ন ডুলাহাজারা ডিগ্রি কলেজের গেইটের সামনে মর্মান্তিক এক দুর্ঘটনা গুরুতর আহত হয় তিনি।

নিহত কলেজ ছাত্র রাকিবুল ইসলাম চকরিয়া উপজেলার ডুলাহাজারা ইউনিয়নের ৫ নম্বর ওয়ার্ডস্থ বালুরচর এলাকার মো: মনছুর আলমের ছেলে ও ডুলাহাজারা ডিগ্রি কলেজের দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র।

পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান,  রোববার দুপুর দেড়টার দিকে চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়ক সংলগ্ন ডুলাহাজারা ডিগ্রি কলেজের গেইটের সামনে রাকিবুল ইসলাম কলেজ ছুটি হলে প্রতিদিনের ন্যায় মোটরসাইকেল চালিয়ে সড়কে উঠতেই বিপরীত দিক থেকে আসা চট্টগ্রামমুখী বেপরোয়া গতিতে যাত্রীবাহি মারছা পরিবহনের গাড়ি তাকে ধাক্কা দিলে রাস্তা থেকে ছিটকে পড়ে যান। ওইসময় ঘটনাস্থল থেকে সহপাঠী ও স্থানীয়রা তাকে দ্রুত উদ্ধার করে মালুমঘাট মেমোরিয়াল খ্রিষ্টান হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। পরে তার শারীরিক অবস্থা আশঙ্কাজনক হলে উন্নত চিকিৎসার জন্য রাকিবকে চট্টগ্রাম পার্কভিউ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। ওই দিন রাত দেড়টার দিকে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান।
এদিকে, সোমবার সকালের দিকে ডুলাহাজারা কলেজের দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র রাকিব বেপরোয়া গতির যাত্রীবাহি মারছা গাড়ির ধাক্কায় নিহত হলে কলেজের শিক্ষার্থীরা বিক্ষুদ্ধ হয়ে মহাসড়ক অবরোধ করে ব্যরিকেড দিয়ে বিক্ষোভ সমাবেশ করেছে। এতে রাস্তার উভয় পাশে সবধরণের যানচলাচল বন্ধ হয়ে যায়। এসময় ছাত্র-ছাত্রীরা নানা ধরণের শ্লোগান তুলে নিহত মেধাবী কলেজ ছাত্র রাকিব হত্যার বিচারের জোর দাবী জানান প্রশাসনের কাছে। এছাড়াও বিক্ষুব্ধ ছাত্র-ছাত্রীরা সমাবেশে বিভিন্ন দাবি তুলেন। তাদের দাবি গুলো হচ্ছে, দুর্ঘটনার সকল ক্ষয়ক্ষতির ব্যয় ভার মারছা গাড়ির মালিক পক্ষকে বহন করতে হবে। কলেজের সামনে স্পীড ব্রেকার নির্মাণ। কলেজ ছুটির সময়ে সড়ক পারাপারে ট্রাফিক পুলিশের সহযোগিতা প্রদান এবং কলেজে অধ্যায়নরত ছাত্র-ছাত্রীদের হাফ ভাড়ায় যাতায়াত সুবিধা প্রদান নিশ্চিত করণ।

ছাত্র-ছাত্রীদের দাবির প্রতি একাত্মতা প্রকাশ করে সমাবেশে অংশ নেন ডুলাহাজারা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান হাসানুল ইসলাম আদর, ডুলাহাজারা ইউনিয়ন ছাত্রলীগ ও কলেজের প্রাক্তন শিক্ষার্থীরা।

পরে খবর পেয়ে দ্রুত বিক্ষোভ সমাবেশে উপস্থিত হয়ে শিক্ষার্থীদের বিভিন্ন দাবি পূরণের আশ্বাস দেন চকরিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) জেপি দেওয়ান। এসময় উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) রাহাত উজ জামান, থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) চন্দন কুমার চক্রবর্তী, থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) আবদুল জব্বার ও মালুমঘাট হাইওয়ে থানার ওসি মকছুদ আহমদ উপস্থিত ছিলেন।

মালুমঘাট হাইওয়ে থানার ইনর্চাজ (ওসি) মকছুদ আহম্মদ বলেন, খবর পেয়ে দ্রুত ঘটনাস্থলে গিয়ে দুর্ঘটনা কবলিত গাড়িসহ আরো একটি মারছা গাড়ি জব্দ করে থানায় নিয়ে আসা হযেছে। এ ব্যাপারে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে বলে জানান তিনি।