ভারত আওয়ামী লীগের জন্য যুক্তরাষ্ট্রকে বার্তা দিয়েছে -এমন সংবাদকে ভিত্তিহীন বলে মন্তব্য করে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, তারা এখনো এই সংবাদের সত্যতা পাননি।

রবিবার (২০ আগস্ট) বিকালে গুলশান চেয়ারপারসনের কার্যালয়ে এক জরুরি সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন।

আওয়ামী লীগ এখন সন্ত্রাসী সংগঠন ও পুলিশ হলো রাষ্ট্রীয় সন্ত্রাস বলে মন্তব্য করে মির্জা ফখরুল বলেন, বর্তমানে দলের নেতাকর্মীদের গুম খুন গ্রেপ্তার বেড়ে যাওয়া হলো আওয়ামী লীগের নির্বাচনী কৌশল। আওয়ামী লীগের একমাত্র লক্ষ্য বিরোধীদের মাঠ থেকে সরিয়ে দিয়ে নির্বাচনী মাঠ খালি করা।

ছাত্রদল নেতাদের পুরানো অস্ত্র দিয়ে গ্রেপ্তারকে পুলিশের নতুন নাটক বলে মন্তব্য করে ফখরুল বলেন, তারা আবারও বড় ধরনের হামলা-মামলা ও গ্রেপ্তারের ক্ষেত্র প্রস্তুত করছে।

তিনি বলেন, সরকারের সকল অস্ত্র আছে, পুলিশ আছে, রাষ্ট্রীয় সকল শক্তি আছে- তারা চাইলে যে কোনো নাটক সাজাতে পারে।

জনগণ শান্তিপূর্ণ নিয়মতান্ত্রিক আন্দোলন চালিয়ে যাচ্ছে, নির্বাচনের সময় যতই ঘনিয়ে আসছে ততই বিরোধী দলের নেতাকর্মীরা হত্যা, গুম খুন ও গ্রেপ্তার করছে। বিএনপি নেতাকর্মীদের নির্বাচনে অযোগ্য ঘোষণা করার পায়তারা চলছে বলেও অভিযোগ করেন মির্জা ফখরুল।

মির্জা ফখরুল বলেন, উচ্চ আদালত থেকে জামিন পাওয়ার পরেও নেতাকর্মীদের গ্রেপ্তার করছে, নির্বাচনের মাঠ খালি করার সকল অপচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। নির্বাচনে যোগ্য প্রার্থীদের নির্বাচন থেকে সরিয়ে দেয়ার চেষ্টা চালাচ্ছে সরকার।

এসময় তিনি বলেন, নারায়ণগঞ্জ, হবিগঞ্জে পুলিশ ও আওয়ামীলীগের সংঘর্ষ ও গতকাল নয়াপল্টনে ডিবি কর্তৃক নেতাকর্মীদের গ্রেপ্তারের নিন্দা জানাই। আটকে ৬ ছাত্রদল নেতাদের মুক্তি দাবি করেন মির্জা ফখরুল।

এছাড়াও সাংবাদিক শফিক রেহমান ও মাহমুদুর রহমানের বিরুদ্ধে আদালতের রায়কে ফরমায়েশি আখ্যা দিয়ে নিন্দা জানান তিনি।