জহিরুল ইসলাম:
কয়েকমাস আগে গরু চুরির মামলায় জেলা গোয়েন্দা পুলিশের হাতে গ্রেপ্তার হয়ে কিছুদিন জেলে থাকার পর জামিনে বেরিয়ে আসেন চকরিয়ার সাহারবিলের নবী হোছাইন প্রকাশ নবী।

এলাকাবাসীর অভিযোগ, সাহারবিল মৎস্য অবতরণকেন্দ্রের পাল্লার দায়িত্ব ছেড়ে দিতে মো. জালাল উদ্দিনকে নির্দেশ দেন নবী হোছাইন। কিন্তু জালাল তার নির্দেশ মতো স্টল ছেড়ে না দেওয়ায় বুধবার তার কোরালখালী গ্রামের নিজ বাড়িতে গিয়ে জালালকে খুঁজতে থাকেন এবং কয়েক রাউন্ড ফাঁকা গুলি ছুঁড়ে এলাকায় ভীতিকর পরিস্থিতি সৃষ্টি করেন।

এসময় জালালকে না পেয়ে বাড়িতে ভাঙচুর ও উপর্যুপুরি ধারালো অস্ত্র দিয়ে বেশ কয়েকজনকে কোপান তারা। এসময় জালালের স্ত্রী ও ৩ নারীসহ অন্তত ৮ জন আহত হন।

তাদেরকে স্থানীয়রা উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যান। তন্মধ্যে এক নারীসহ দুজনকে মুমূর্ষু অবস্থায় উন্নত চিকিৎসার জন্য চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়।

আহতরা হলেন, চমেক হাসপাতালে রেফার করা মাশুক আহমদের ছেলে মো. রায়হান (২৮), আবুল কাশেমের স্ত্রী ফাতেমা বেগম (৩০), উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি থাকা বুলু মিয়ার ছেলে মো. গোলাল (৪০) ও আবুল কাশেম (৩২), স্ত্রী নূর বেগম (৭০), মো. জালালের স্ত্রী কুলছুমা বেগম (৩৫), আবু ছিদ্দিকের স্ত্রী হুমাইরা বেগম (৪৫) ও আবু বক্করের ছেলে মো. মুবিন (২৫)।

স্টল ছেড়ে দেওয়ার নির্দেশ পাওয়া ভুক্তভোগী জালাল উদ্দিনসহ স্থানীয় লোকজন জানান, গতকাল বুধবার বিকেল পাঁচটার দিকে নবী হোছাইন তার ১৫-২০ জন সহযোগী নিয়ে এই হামলা চালিয়েছেন। এ সময় তারা প্রথমে ৫-৬ রাউন্ড ফাঁকা গুলি ছুঁড়ে। পরে তাকে (জালাল) না পেয়ে ধারালো কিরিচ এবং লোহার রড দিয়ে এলোপাতাড়ি আক্রমণ চালায় পরিবার সদস্যদের ওপর। ভাঙচুর করা হয় পুরো বাড়িতে।

তবে অভিযুক্ত নবী হোছাইন আজকের ঘটনার সময় উপস্থিত থাকলেও হামলা বা অন্যকোনো ঘটনায় সম্পৃক্ত নয় বলে দাবি করেছেন। নবী হোছাইনের দাবি, তিনি চৌয়ারফাঁড়ি বাজারের একজন বৈধ ইজারাদার। কিন্তু জালাল উদ্দিন একজন বড় চাঁদাবাজ। প্রতিনিয়ত তার চাঁদাবাজিতে বাজারের ব্যবসায়ীরা অতিষ্ট।

ঘটনাস্থ পরিদর্শন ও প্রত্যক্ষদর্শীদের সাথে কথা বলেছেন, কক্সবাজার-১ আসনের সংসদ সদস্য জাফর আলম। তিনি বলেন, ‘হামলার ঘটনায় যারাই জড়িত থাকুক তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নিতে পুলিশকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।’

এ ব্যাপারে চকরিয়া থানার ওসি মো. হাবিবুর রহমান জানান, ‘এ ধরনের ঘটনার খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। ঘটনায় যারা জড়িত লিখিত অভিযোগ পেলে তাদের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •