ডেস্ক নিউজ:

সাভারের আশুলিয়ার নয়ারহাট চৌরাবালি এলাকার একটি বাড়িতে জঙ্গি আস্তানা সন্দেহে অভিযান চালাচ্ছে র‌্যাব। সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী সেখানে অবস্থান নেয়া সকল জঙ্গি র‌্যাবের কাছে আত্মসমর্পণ করেছেন।

তবে তাদের পরিচয় এখনও জানা যায়নি। রোববার দুপুর সাড়ে ১২টায় প্রথমে দুই ‘জঙ্গি’ আত্মসমর্পণ করেন। ১টার পর আরও দুই ‘জঙ্গি’ও আত্মসমর্পণ করেন।

রোববার দুপর ১২টায় এ রিপোর্ট লেখার আগ পর্যন্ত ওই আস্তানা থেকে গুলির শব্দ পাওয়া যায়।

র‌্যাবের আইন ও গণমাধ্যম শাখার পরিচালক কমান্ডার মুফতি মাহমুদ খান জাগো নিউজের কাছে চার ‘জঙ্গি’র আত্মসমর্পণের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, তাদের আহ্বানের পরিপ্রেক্ষিতে দুপুর ১২টার দিকে দুই জঙ্গি আত্মসমর্পণ করেন। ভেতরে তখনও দুই জঙ্গি সশস্ত্র অবস্থায় অবস্থান করছিলেন। আত্মসমর্পণকারী দুই জঙ্গির মাধ্যমে আমরা তাদেরও আত্মসমর্পণের আহ্বান জানাই। দুপুর ১টার দিকে তারা আস্তানা থেকে দুই হাত তুলে বের হয়ে আসেন।

আত্মসমর্পণকারী চার জঙ্গিকে র‌্যাব হেফাজতে নেয়া হয়েছে বলেও জানান তিনি।

এর আগে, সকাল সাড়ে ৭টার দিকে ওই আস্তানা থেকে গুলি ও বোমার বিস্ফোরণ ঘটানো হয়। এরও আগে র‌্যাবের উপস্থিতি টের পেয়ে বাড়ির ভেতর থেকে রাত ৩টার দিকে সন্দেহভাজন জঙ্গিরা র‌্যাব সদস্যদের লক্ষ্য করে কয়েক রাউন্ড গুলি ছোড়ে।

মুফতি মাহমুদ এর আগে জানান, গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে বাড়িটিতে জঙ্গিদের অবস্থান নিশ্চিত হয়ে সেখানে যায় র‌্যাব। প্রথম থেকেই জঙ্গিদের আত্মসমর্পণের আহ্বান জানানো হয়।

অভিযান শুরুর আগে ওই বাড়ির আশপাশের বাসিন্দাদের নিরাপদ স্থানে সরিয়ে নেয়া হয়। র‌্যাবের বিশেষ ইউনিট এবং বোমা নিষ্ক্রিয়কারী দলও সেখানে অবস্থান করছে।

শনিবার দিবাগত রাত ১টা থেকে আশুলিয়ার নয়ারহাট চৌরাবালি এলাকার ইব্রাহিম নামের এক ব্যক্তির মালিকানাধীনে ওই বাড়িটি ঘেরাও করে অভিযান শুরু করে র‌্যাব। আজাদ নামে এক ব্যক্তি নিজেকে পোশাক শ্রমিক পরিচয় দিয়ে বাড়িটি ভাড়া নেয়।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •