রিয়াজ উদ্দিন, পেকুয়া : পেকুয়ায় প্রতিপক্ষের হামলায় মা-মেয়েসহ ২ জন গুরুতর আহত হয়েছেন। আহতদের স্থানীয়রা উদ্ধার করে পেকুয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। এদের একজনের অবস্থা গুরুতর হওয়ায় চমেক হাসপাতালে রেফার করা হয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে গত ২৪ মে দিবাগত রাত আনুমানিক ১২ টা ৩০ মিনিটের দিকে উপজেলার সদর ইউনিয়নের গোঁয়াখালী দক্ষিন বটতলীয়া পাড়া এলাকায়। ঘটনার জের ধরে এলাকায় দু’পক্ষের মধ্যে উত্তেজনা বিরাজ করছে। খবর পেয়ে পেকুয়া থানা পুলিশ ও স্থানীয় ইউপি সদস্য ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। তবে অপ্রীতিকর পরিস্থিতি ঠেকাতে পুলিশ টহল জোরদার করেছে বলে নিশ্চিত হওয়া গেছে। আহতরা হলেন, ওই এলাকার মোহাম্মদ হোসাইনের স্ত্রী সালেহা বেগম(৪৮), ও মেয়ে ছাবেকুন্নাহার(২২)। এ বিষয়ে মোহাম্মদ হোসাইনের স্ত্রী বাদি হয়ে গতকাল পেকুয়া থানায় একটি লিখিত এজাহার দায়ের করে। প্রত্যক্ষদর্শী সুত্রে জানা গেছে, জায়গা সংক্রান্ত বিষয়ে মোহাম্মদ হোসাইন গং দের সাথে মগকাটা এলাকার মৃত বাচা মিয়ার ছেলে শামশুল আলম গংদের মধ্যে বিরোধ চলছিল। এর জের ধরে ওই দিন রাতে শামশুল আলমের নেতৃত্বে ১৮/২০ জনের দুবৃর্ত্তরা মোহাম্মদ হোসাইনের বাড়িতে হানা দেয়। এ সময় উচ্ছেদের কুমানসে বাড়ি ঘর ভাংচুর চালায় তারা। এ সময় বাধা দেয়ার চেষ্টা করা হয়। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে উত্তেজিত লোকজন ছালেহা বেগম ও তার মেয়ে ছাবেকুন্নাহারকে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে জখম করে। এ ব্যাপারে ইউপি সদস্য নুরুল হক সাদ্দাম জানায়, খবর পেয়ে রাতে ঘটনাস্থলে গিয়েছিলাম। মা-মেয়ের সাথে নিষ্টুর আচরন করা হয়েছে। পেকুয়া থানার এস, আই কামরুল হাসান জানায়, ওই স্থানে গিয়েছি, দুপক্ষকে শান্ত থাকার জন্য বলা হয়েছে।

 

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •