প্রেস বিজ্ঞপ্তিঃ
রামুর উপজেলার গর্জনিয়া পশ্চিম জুমছড়ি গর্জনিয়া শাহ বদর আউলিয়া (রঃ) হেফজখানা ও এতিমখানার ৫৫জন হাফেজকে ঈদ সামগ্রী উপহার দিয়েছেন উপজেলা নির্বাহী (ইউএনও) কর্মকর্তা প্রণয় চাকমা।
মঙ্গলবার (১১ মে) সকালে ইউএনওর নিকট থেকে উপহার সামগ্রী গ্রহণ করেন ওই প্রতিষ্ঠানটির প্রতিষ্ঠাতা সাংবাদিক মোঃ নেজাম উদ্দিন। একইদিন দুপুরে তিনি নিজেই উপহার সামগ্রী আনুষ্ঠানিকভাবে হাফেজ ও এতিমদের হাতে তুলে দেন। যা পেয়ে খুদে শিক্ষার্থীরা অনন্দ প্রকাশ করেছে।
এ প্রসঙ্গে মোঃ নেজাম উদ্দিন বলেন, বর্তমান সমাজে সকল শিশু কোরআন শিক্ষায় শিক্ষিত হতে হাফেজখানার বিকল্প নেই। তাই আমি চিন্তা ভাবনা করে প্রত্যন্ত এই অঞ্চলে হাফেজখানাটি প্রতিষ্ঠা করি । উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা প্রণয় চাকমা  আন্তরিকতার সাথে কাজ করে যাচ্ছেন । তার উজ্জল উদাহারণ এই হাফেজখানা। তিনি বলেন, অজপাড়া গায়ে হাওয়ার সত্তেও ইউএনও নিজেই ফোন করে হাফেজ শিশুদের খোঁজখবর নেন। আমি ইউএনওসহ সংশ্লিষ্ট সবার নিকট কৃতজ্ঞ।
অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন- হাফেজখানার বর্তমান দায়িত্বরত সভাপতি মোঃ ই্উনুস, হাফেজখানার প্রধান শিক্ষক হাফেজ নুরুল কবির, হাফেজখানার নাজেরা শাখার শিক্ষক হাফেজ আব্দুল্লাহ জাহাঙ্গীর, মরিচ্যাচর জামে মসজিদের পরিচালনা কমিটির সভাপতি মোঃ মহি উদ্দিন, মোঃ নজির হোসন মিন্টু, সালেহ আহমদসহ সমাজের বিভিন্ন পেশাজীবির মানুষ।
উল্লেখ্য, এর আগে এইসব সুবিধা বঞ্চিত শিশুদের কক্সবাজার সমুদ্র সৈকত দেখার সুযোগ করে দেয় রামু উপজেলা প্রশাসন।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •