সিবিএন ডেস্ক:
করোনাভাইরাস মহামারির মধ্যে যারা স্বাস্থ্যবিধি মানবেন না, তাদের বিরুদ্ধে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা ও আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়াসহ চারটি নির্দেশনা দিয়েছে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ।

সোমবার (৩১ আগস্ট) কোভিড-১৯ এর বর্তমান পরিস্থিতিতে জনসাধারণের সার্বিক কার্যাবলি/চলাচলের ক্ষেত্রে এই চারটি নির্দেশনা দিয়ে মন্ত্রণালয় ও বিভাগগুলোর সচিব/সিনিয়র সচিবদের কাছে চিঠি পাঠানো হয়েছে।

কোভিড-১৯ এর বর্তমান পরিস্থিতিতে জনসাধারণের সার্বিক কার্যাবলি/চলাচলের ক্ষেত্রে আগামীকাল ১ সেপ্টেম্বর থেকে এসব নির্দেশনা বাস্তবায়ন করতে হবে। তবে সংক্রমণ পরিস্থিতিতে বিধি-নিষেধ পালনের জন্য আগের মতো সময় বেঁধে দেয়া হয়নি।

যার আছে ৪ নির্দেশনায়-

>> জনসাধারণের সার্বিক কার্যাবলি/চলাচলের ক্ষেত্রে স্ব-স্ব মন্ত্রণালয় বিভাগ কর্তৃপক্ষ তাদের আওতাধীন বিষয়ে স্বাস্থ্যবিধি প্রতিপালন নিশ্চিত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।

>> বাসস্থানের বাইরে সর্বাবস্থায় মাস্ক পরিধান করা, পারস্পরিক দূরত্ব বজায় রাখা ও অন্যান্য স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলা নিশ্চিত করতে হবে।

>> কোভিড-১৯ এর বিস্তার রোধে স্থানীয় সরকার বিভাগ, তথ্য মন্ত্রণালয়, ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয়, স্বাস্থ্যসেবা বিভাগসহ জেলা ও উপজেলা প্রশাসন ব্যাপক প্রচারণা ও জনসচেতনতামূলক কার্যক্রম বাস্তবায়ন করবে।

>> স্বাস্থ্যবিধি সংক্রান্ত নিয়মাবলি অমান্যকারী ব্যক্তি/প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে মোবাইল কোর্ট পরিচালনাসহ যথাযথ আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ নিশ্চিত করতে হবে।

এমতাবস্থায় মন্ত্রণালয়/বিভাগের আওতাধীন বিষয়ে সচিবদের প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য নির্দেশনা দেয়া হয়েছে চিঠিতে।

৮ মার্চ দেশে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগী প্রথম ধরা পড়ে। পরিস্থিতির ক্রম অবনতির দিকে যেতে থাকলে ২৬ মার্চ থেকে ৪ এপ্রিল পর্যন্ত ছুটি ঘোষণা করে সরকার। এরপর দফায় দফায় ছুটি বাড়তে থাকে। সর্বশেষ ঘোষণা অনুযায়ী গত ৩০ মে পর্যন্ত সাধারণ ছুটি ছিল। পরে ৩১ মে থেকে ১৫ জুন পর্যন্ত স্বাস্থ্যবিধি মেনে সীমিত পরিসরে অফিস খুলে দেয়া হয়, চালু করা হয় গণপরিবহনও। পরে এ ব্যবস্থা তিন দফায় ৩১ আগস্ট পর্যন্ত বর্ধিত করা হয়। সেই মেয়াদ আজ শেষ হচ্ছে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •