অনলাইন ডেস্ক : এ যেন আজব দেশের গজব কাহিনী। মহামারী করোনা থেকে বাঁচাতে সারি সারি ভাবে প্রায় ৫০ শিশুকে বসানো হয়েছে মদের আসরে। এমনকি সেখানে শিশুদের পান করানো হয় দেশি মদ।

ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের ওডিশার মালকিনগিরি জেলার পসরানপল্লী গ্রামে। অধিকাংশ আদিবাসী অধ্যুষিত এই গ্রামের বাসিন্দারা গত সোমবার করোনা সংক্রমণ থেকে নিস্কৃতি পাওয়ার আশায় গ্রামের ৫০ জন শিশুকে দেশি মদ পান করায়।

জানা যায়, ওই গ্রামের অন্তত ৫০টি শিশুকে গ্রাম সংলগ্ন একটি মাঠে সারি দিয়ে বসানো হয়। তারপর সবুজ শালপাতার প্লেটে করে সলপ রস দিয়ে তৈরি দেশি মদ পান করানো হয়। আর উদ্ভট এই কাণ্ডের সময় কোনোরকম সামাজিক দূরত্ব মানা হয়নি বলেও অভিযোগ রয়েছে। এমনকি ওই শিশুরা গা ঘেঁষাঘেঁষি করে বসেছিলো। তাদের মুখে মাস্কও পরানো হয়নি।

স্থানীয় সুত্রে জানা যায়, গত রোববার সন্ধ্যায় স্থানীয় জঙ্গল থেকে কমপক্ষে পাঁচ হাঁড়ি সলপ রস সংগ্রহ করে গ্রামবাসীরা। তারপর তা চোলাই মদ হিসাবে তৈরি করা হয়। অনেকটা খেজুর এবং পাম প্রজাতির ফলের মতো হয় সলপ গাছ। এই গাছ জঙ্গলে প্রাকৃতিকভাবেই বেড়ে ওঠে। ভারতের ওডিশা, ছত্রিশগড় এবং অন্ধ্রপ্রদেশের আদিবাসী উপজাতিরা চোলাই মদ তৈরি করার জন্য এই ফলের রস ব্যবহার করেন।

ওডিশার অধিকাংশ আদিবাসীরা মনে করেন, সলপ রস দিয়ে তৈরি দেশি মদ খেলে তাদের শরীরে যে কোনও রোগের সঙ্গে লড়াই করার প্রতিরোধ ক্ষমতা গড়ে উঠবে। যা করোনা ঠেকাতেও সক্ষম বলে তাদের ধারনা।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •