গত ১৪ ও ২৪ জুলাই-২০২০ বিভিন্ন অনলাইন পোর্টাল, ফেসবুক, প্রিন্ট মিডিয়ায় আমাকে ও আমার পরিবারকে নিয়ে প্রকাশিত সংবাদ গুলো আমার দৃষ্টিগোচর হয়েছে। সংবাদ গুলো ডাহা মিথ্যা, ষড়যন্ত্রমূলক ও মানহানিকর। সত্য যে, আমার পরিবারের কোন সদস্য কখনো, কোনদিন মাদক কিংবা ইয়াবা ব্যবসায় জড়িত ছিল না। আমার ভাই ফোরকানের আটকের বিষয়টি নিতান্তই ষড়যন্ত্রমূলক। আর আমার চাচাতো বোন শাহনাজ বেগম, তার স্বামী ও অন্যরা দীর্ঘ দিন ধরে মাদকসহ সমাজ ও রাষ্ট্র বিরোধী কর্মকান্ডে জড়িত। এসব অনিয়মের বাঁধা দেয়ায় ২২ জুলাই রাতে আটক শাহনাজ বেগম ও তার সাঙ্গ-পাঙ্গরা আমার এবং পরিবারের উপর বিগত ২০১৩ সালের ৫ জুলাই সশস্ত্র হামলা চালায়। সন্ত্রাসী হামলায় আমি নিজে আহত হই। এ ঘটনায় উল্টো শাহনাজ বেগম বাদী হয়ে আমাকে এক নম্বর আসামী করে আমার পরিবারের সদস্যদের নামে মিথ্যা মামলা দায়ের করে। বর্তমানে মামলাটি আদালতে শুনানী পর্যায়ে রয়েছে।

পরবর্তীতে ১৪ নভেম্বর ২০১৩ এই শাহনাজ বেগম ও তার লালিত সাঙ্গ-পাঙ্গদের নামে আমি কক্সবাজার মডেল থানায় অভিযোগ দায়ের করি। বর্তমানে পরিবারটি সমাজচ্যুত। আমি ইয়াবা বিরুধী অভিযানকে স্বাগত জানাই। বিচ্ছিন্ন এসব ঘটনায় আমাকে জড়িত করা ষড়যন্ত্রের অংশ। মূলতঃ আমার শত্রুপক্ষ আমার রাজনৈতিক সফলতায় ঈর্ষান্বিত হয়ে, আমার সম্মানহানি করতে এসব সংবাদে আমার নামটি জড়িয়েছে। আমি এসব মিথ্যা সংবাদের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি। মিথ্যা সংবাদে বিভ্রান্ত না হওয়ার জন্য প্রশাসনসহ সর্ব মহলের প্রতি অনুরোধ জানাচ্ছি।

প্রতিবাদকারী

মোহাম্মদ আবদুল্লাহ

সভাপতি

সদর উপজেলা শ্রমিক লীগ।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •