সিবিএন ডেস্ক:
দেশের স্বাস্থ্যখাতে আরও পাঁচ হাজার মেডিকেল টেকনোলজিস্ট নিয়োগ করা হবে বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক। তিনি বলেন, ‘মাত্র ১০ দিনের মধ্যে দুই হাজার চিকিৎসক ও পাঁচ হাজার নার্স নিয়োগ দেওয়া হয়েছে। চিকিৎসা খাতকে আরও শক্তিশালী করতে খুব দ্রুতই টেকনোলজিস্টদেরও নিয়োগ দেওয়া হবে।’

রবিবার দুপুরে রাজধানীর বসুন্ধরা আন্তর্জাতিক কনভেনশন সেন্টারে করোনা আক্রান্তদের জন্য দুই হাজার শয্যার অস্থায়ী হাসপাতাল উদ্বোধন অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন।

জাহিদ মালেক বলেন, ‘মাত্র ২০ দিনের মধ্যে এই হাসপাতালটি সরকার প্রস্তুত করতে পেরেছে।এটি বিশ্বের দ্বিতীয় বড় কোভিড ডেডিকেটেড হাসপাতাল। এখানে অত্যাধুনিক মোট দুই হাজার ১৩ টি আইসোলেটেড শয্যা রয়েছে। যার মধ্যে ৭১ টির সাথে অক্সিজেন সিলিন্ডার যুক্ত করা হয়েছে। আরো চারশটি পোর্টেবল অক্সিজেন সিলিন্ডার আছে। আইসিইউ ব্যবস্থাও আছে। সবমিলে এটি কোনো অংশে পিছিয়ে নেই।’

সাংবাদিকের প্রশ্নের জবাবে স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, ‘হাসপাতালে জনবল পর্যায়ক্রমে নিয়োগ করা হচ্ছে। প্রথমে ৫০০ রোগীর চিকিৎসার জন্য জনবল নিয়োগ করা হয়েছে। রোগীর ওপর ভিত্তি করে পরে আরও ৫০০ রোগীর জন্য জনবল নিয়োগ করা হবে। এভাবে ধাপে ধাপে বাকি শয্যাগুলোর জন্য জনবল নিয়োগ দেওয়া হবে।’

স্বাস্থ্যমন্ত্রী জানান, করোনা আক্রান্তদের চিকিৎসায় দেশে এখন প্লাজমা থেরাপির নিয়ে পরীক্ষা-নিরীক্ষা চলছে। পাশাপাশি আমেরিকার উৎপাদিত ওষুধ রেমডেসিভির এখন দেশেই তৈরি হচ্ছে এবং সরকারের কাছে এই ওষুধ মজুত আছে।

বসুন্ধরা গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক সায়েম সোবহান বলেন, ‘আমরা সুষ্ঠুভাবে হাসপাতালটি করতে পেরেছি এটা বড় আনন্দের। এজন্য স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়কে ধন্যবাদ জানাই। বিশেষ করে প্রধানমন্ত্রীকে ধন্যবাদ জানাই যে, উনি আমাদের হাসপাতাল তৈরির প্রস্তাবটি গ্রহণ করেছেন। আমরা যতটুকু সম্ভব ততটুকু করেছি, এখন হাসপাতালটি যাতে ঠিকভাবে পরিচালিত হয়, রোগীরা যাতে কাঙ্ক্ষিত সেবা পায় এজন্য স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় ও সংশ্লিষ্টদের অনুরোধ জানাই।’

এসময় তিনি করোনা হাসপাতালে সাংবাদিকদের জন্য দুশোটি শয্যা বরাদ্দ রাখার জন্য স্বাস্থ্যমন্ত্রীকে অনুরোধ জানান।

স্বাস্থ্যসেবা বিভাগের সচিব আসাদুল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন স্বাস্থ্যসেবা বিভাগের অতিরিক্ত সচিব (প্রশাসন) হাবিবুর রহমান, অতিরিক্ত সচিব (হাসপাতাল) সিরাজুল ইসলাম, দৈনিক বাংলাদেশ প্রতিদিনের সম্পাদক নঈম নিজাম, দৈনিক কালের কণ্ঠের সম্পাদক ইমদাদুল হক মিলন, বসুন্ধরা গ্রুপের গণমাধ্যম উপদেষ্টা আবু তৈয়ব, বসুন্ধরা গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালকের পররাষ্ট্র বিষয়ক উপদেষ্টা সাজ্জাদ হায়দার ও আইসিসিবি’র প্রধান পরিচালন কর্মকর্তা এম এম জসীম উদ্দিন, ডেইলি সান সম্পাদক এনামুল হক চৌধুরী, বাংলানিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম এর সম্পাদক জুয়েল মাজহার, আইসিসিবি হাসপাতালের পরিচালক ডা. মো. এহসানুল হক, স্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তরের প্রধান প্রকৌশলী ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মোহাম্মদ ওসমান সরোয়ার প্রমুখ।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •