এম.মনছুর আলম, চকরিয়া :
চকরিয়া পৌরশহরের সরকারী বালক উচ্চ বিদ্যালয়ের মাঠে হঠাৎ করে একটি হেলিকপ্টার অবতরণ করে।
বৃহস্পতিবার (১৯সেপ্টেম্বর) বেলা আড়াইটার দিকে হেলিকপ্টারটি দেখার জন্য আশপাশের হাজারো উৎসুক জনতা ভিড় জমায় ওই স্কুল মাঠে। পরে পাঁচ মিনিটের মাথায় আবারও উড্ডয়ন করে চলে যায় হেলিকপ্টারটি। এসময় উৎসুক জনতা মোবাইল ফোনে ছবি ধারণসহ অনেকে সেলফি তুলতে ব্যস্ত হয়ে যায়।
অবতরণের পাঁচ মিনিটের মধ্যে হাজারো লোকের সমাগম এবং হেলিকপ্টার নিয়ে পুরো এলাকায় ‘টক অব দ্যা ডে’ পরিণত হয়েছে। চকরিয়া একজন ব্যবসায়ীর পরিবারকে নিয়ে হেলিকপ্টারটি ঢাকার উদ্দেশ্যে উড্ডয়ন করে।
জানা গেছে, চকরিয়া পৌরশহরের হক ট্রেডার্স স্বত্বাধিকারী নুরুল আমিন বসুন্ধরা এলপি গ্যাস লিমিটেডের ‘স্বপরিবার আকাশ ভ্রমণ’ একটি প্যাকেজে চট্টগ্রাম বিভাগে প্রথম হয়ে আকাশ ভ্রমণের সুযোগ পান। সেই সুযোগে ব্যবসায়ী নুরুল আমিন স্ত্রী ও দুই ছেলেকে নিয়ে ঘুরে বেড়ান।
এ বিষয়ে জানতে বসুন্ধরা এলপি গ্যাস লিমিটেডের কক্সবাজার আঞ্চলিক সেলস ম্যানেজার মোহাম্মদ সাইদুর রহমানের যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, বসুন্ধরা বাংলাদেশের সকল ডিস্ট্রিবিউটরদের নিয়ে বিভিন্ন উৎসাহমুলক অনুষ্ঠান করে থাকেন। ব্যবসায়ী নুরুল আমিন বসুন্ধরা এলপি গ্যাস লিমিটেডের ‘স্বপরিবার আকাশ ভ্রমণ’ একটি প্যাকেজে তিনি চট্টগ্রাম বিভাগে প্রথম হন।
উৎসুক জনতার মুখে মুখে শোনা যায়, হেলিকপ্টারে মনে হয় কোন ভি আই পি এসেছেন। এমনও মনে করেন কোন যান্ত্রিক ক্রুটির কারণে জরুরী অবতরণ করছে। পরে ওই ব্যবসায়ী পরিবারকে নিয়ে হেলিকপ্টার উড্ডয়ন করার পর মানুষের নানা মন্তব্য পরিষ্কার হয়।
হক ট্রেডার্স স্বত্বাধিকারী নুরুল আমিন ছেলে আসিফুল হাসান বলেন, ‘বসুন্ধরা এলপি গ্যাস লিমিটেডের ‘স্বপরিবার আকাশ ভ্রমণ’ প্রোগ্রামে আমাদের প্রতিষ্ঠান চট্টগ্রাম ডিবিশনে প্রথম হয়েছে। এই প্রথম হওয়ার পিছনে টেরিটোরি ম্যানেজার রবিউল ইসলামের অবদান অনন্য। হেলিকপ্টারে আকাশ ভ্রমণের ইচ্ছাও পুরণ হয়েছে। আমি খুবই আনন্দিত।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •