মুকুলের মৌ মৌ গন্ধে ফিরে এলো ঋতুরাজ বসন্ত

সেলিম উদ্দিন, ঈদগাঁও, কক্সবাজার :

ফাগুনের ছোঁয়ায় পলাশ-শিমুলের বনে লেগেছে আগুন রাঙা ফুলের মেলা। শীতের জড়তা কাটিয়ে কোকিলের সেই সুমধুর কুহু ডাকে আবারও ফিরে এলো মাতাল করতে ঋতুরাজ বসন্ত। রঙিন-বন,গাছে-গাছে নতুন কুড়ি গজিয়েছে ফুলের সমারোহে প্রকৃতি যেমন সেজেছে বর্ণিল সাজে, তেমনি নতুন সাজে যেন সেজেছে আম গাছ গুলো। আমের মুকুলে ভরপুর আর ঘ্রাণে কক্সবাজার সদর উপজেলার ঈদগাঁও’র সর্বত্র জানান দিচ্ছে বসন্তের আগমনী বার্তা। শোভা ছড়াচ্ছে নিজস্ব মহিমায়। মুকুলে মুকুলে ভরে গেছে আম গাছ। প্রায় ৫০ শতাংশ গাছেই এসেছে মুকুল।

সদর উপজেলার ঈদগাঁওর চাষিরা আশা করছেন বড় ধরনের কোন প্রাকৃতিক দূর্যোগ না হলে এবং আবহাওয়া অনুকুলে থাকলে এবার আমের বাম্পার ফলন হবে। সম্প্রতি আম চাষিরা বাগানে পরিচর্চা নিয়ে এখন ব্যাস্ত সময় পার করছেন। অবশ্য গাছে মুকুল আশার আগে থেকেই গাছের পরিচর্চা করে আসছেন তারা। যাতে করে গাছে মুকুল বা গুটি বাঁধার সময় কোন সমস্যার সৃষ্টি না হয়। দেখা গেছে গ্রামের গাছে-গাছে ভরপুর আমের মুকুল যেন শোভা ছড়াচ্ছে তার নিজস্ব মহিমায়। উপজেলার ঈদগাঁও-ইসলামাবাদ-জালালাবাদের চাষীরা নিজ উদ্যোগে বিভিন্ন স্থান থেকে চারা সংগ্রহ করে আমের বাগান সৃজন করে বর্তমানে অনেকেই চারা উৎপাদন করে তাদের ভাগ্য উন্নয়নের জন্য চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। সুফলও পেয়েছে অনেকেই।

আম চাষে সফল কৃষক ঈদগাঁও ইউনিয়নের ভাদিতলা গ্রামের আহমদ মিয়া জানান, পুরাপুরিভাবে এখনো সব গাছে মুকুল আসেনি। কয়েকদিনের মধ্যেই গাছেই মুকুল আসবে। আমি এ আম থেকে অনেক টাকা আয় করেছি। তার মতো পার্শ্ববর্তী ভোমরিয়া ঘোনা গ্রামের অনেকেই আমের বাগান তৈরি করেছেন। তারা জানান ক্ষতিকারক পোকার আক্রমণ কম থাকায় এবার কাঙ্খিত ফলনের আশা করছেন। সুবিধাভোগীদের সুফল দেখে চাষিরা আম চাষে উৎসাহিত হয়ে নিজ নিজ উদ্যোগে নতুন নতুন বাগান সৃজন করছেন। ধীরে ধীরে ঈদগাঁওর বিভিন্ন গ্রাম জুড়ে সস্প্রসারিত হচ্ছে আমের বাগান। উৎপাদিত আমের চাহিদাও বেড়েছে অনেক। এলাকার আম ঈদগাঁও বাজারসহ বিভিন্ন জায়গায় সরবরাহ হয়ে থাকে।

এ বিষয়ে সদর উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা জানান, ঈদগাঁওর বিরাজমান আবহাওয়া ও মাটি আম চাষের জন্য উপযোগী। বসতবাড়ীর চতুরপাশ ছাড়াও দন্ডায়মান আম গাছে মুকুল থেকে শুরু করে শেষ পর্যন্ত গাছের আম যাতে কোন কারণে বিনষ্ট না হয় সে জন্য সার্বক্ষনিক সতর্ক দৃষ্টি রয়েছে এবং কৃষকদের পরামর্শ প্রদান করা হচ্ছে। বড় ধরনের কোন প্রাকৃতিক দূর্যোগ না হলে এবং আবহাওয়া অনুকুলে থাকলে এ বছর অনেক বেশি আমের উৎপাদন হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে বলে তিনি আশা প্রকাশ করেন।

সর্বশেষ সংবাদ

ঈদগাঁওতে জমছে নিবার্চনী লড়াই : ভোট ব্যাংকে আঘাত হানতে মরিয়া প্রার্থীরা

৪০ হাজার ‘নিষিদ্ধ’ সিগারেটসহ দুই রোহিঙ্গা আটক

নিউজিল্যান্ডের প্রধান পত্রিকাগুলোর প্রথম পাতায় ‘সালাম’

নিউজিল্যান্ডে জুমার নামাজ সরাসরি সম্প্রচার, বিশ্বজুড়ে তোলপাড়

২৩ মার্চ বিশ্ব আবহাওয়া দিবস : কক্সবাজারে বিভিন্ন কর্মসূচী গ্রহণ

আচরণবিধি লঙ্ঘন, মহেশখালীতে দুই প্রার্থীকে জরিমানা

কক্সবাজারে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত ৩

কক্সবাজারে সাংবাদিকের মোটর সাইকেল চুরি

সন্ত্রাস, চাঁদাবাজ ও জবর-দখলমুক্ত নিরাপদ পেকুয়া গড়তে চান আবুল কাশেম

ভাসানচরে পুনর্বাসনকে স্বাগত জানালো ইউএনএইচসিআর

নিরাপদ ও পরিচ্ছন্ন শহর গড়তে বই মার্কাকে বিজয়ী করুন: রশিদ মিয়া

শেখ হাসিনার মনোনিত প্রার্থী জুয়েলকে ভোট দিয়ে জয়যুক্ত করুন : মেয়র মুজিবুর রহমান

বঙ্গবন্ধু প্রেমিকেরা কোনদিন নৌকার সাথে বেঈমানী করতে পারেনা

কক্সবাজার শহরে ইভটিজিংয়ের প্রতিবাদ করায় সংবাদকর্মীর উপর হামলা

উপজেলা পর্যায়ে শ্রেষ্ঠ প্রধান শিক্ষক কোরক বিদ্যাপীঠের প্রধান শিক্ষক নুরুল আখের

উপজেলা পর্যায়ে আবারও শ্রেষ্ঠ শিক্ষক অধ্যাপক পদ্মলোচন বড়ুয়া

কক্সবাজার মার্কেট মালিক ফোরাম গঠিত

লাকড়ি চুরির আপবাদে দুই শিশুকে গাছে বেঁধে নির্যাতন

কক্সবাজারের ৬ টি উপজেলায় রোববার সাধারণ ছুটি ঘোষণা

নবীন আইনজীবীদের রাষ্ট্রীয়ভাবে ন্যূনতম ৫ বছর ভাতা দেয়া উচিৎ : ব্যারিস্টার খোকন