শীতকালীন সবজি তুলতে ব্যস্ত চাষীরা

প্রকাশ: ২৯ ডিসেম্বর, ২০১৭ ১০:৫১ , আপডেট: ২৯ ডিসেম্বর, ২০১৭ ১১:১২

পড়া যাবে: [rt_reading_time] মিনিটে


এক সবজি চাষার সাথে কথা বলছেন প্রতিবেদক এম আবুহেনা সাগর।

এম আবুহেনা সাগর, ঈদগাঁও:
চলতি শীত মৌসুমে শীতকালীন সবজি চাষাবাদে ব্যস্ত হয়ে উঠেছে গ্রামাঞ্চলের চাষারা। এ নিয়ে তারা বেশীভাগই সময় ব্যয় করছে ফসলী জমিতে।
দেখা যায়, সদরের বৃহত্তর ঈদগাঁওর সাত ইউনিয়ন ইসলামপুর, ইসলামাবাদ, পোকখালী, জালালাবাদ, চৌফলদন্ডী, ভারুয়াখালী ও ঈদগাঁও ছাড়া পাশ্বর্বতী ঈদগড়,বাইশারী, রশিদনগর, খুটাখালীর প্রত্যান্ত গ্রামাঞ্চলে ফসলী জমিতে যে যার যার মত করে শীতকালীন শাকসবজি চাষে হরদম ব্যস্ত সময় পার করছে।
তাদের কথা বলার ফুসরত নেই বললেই চলে। এমনকি সবুজ শাক সবজিতে ভরপুর হয়ে উঠেছে বৃহত্তর ঈদগাঁওর ফসলের ক্ষেত। নিজ হাতে আপন মহিমায় অতি কষ্টের বিনিময়ে ফসলী ক্ষেতে সকাল আর বিকেলে দৈনিক দুবার হরেক রকমের পরিচর্যা করতে চোখে পড়ে নারী পুরুষদের।
আবার ঈদগাঁও নদীর তীরে ভোমরিয়াঘোনা পয়েন্টে উব্বর্র ফসলের মাটিতে আলু, বেগুন,মুলা,মরিচ, বিচিসহ নানা জাতের শাক উৎপাদনে মেতে উঠছে সেখানকার নারী পুরুষ উভয়রা। তারা অনেক তরিতরকারী বিক্রি করছে হাটবাজারে। নিজের হাতে কষ্টার্জিত ফসল মোটামুটি দামে বিক্রি করতে পেরে অনেকে খুশিতে উৎফুল্ল। এদিকে ২৮ ডিসেম্বর বিকেলে ঈদগাঁঁও ইউনিয়নের ভাদীতলার জসিম উদ্দিন,গিয়াস উদ্দিন ও জুহুরা বেগম দরগাহ ব্রীজের একটু অদুরে ফসলের ক্ষেতে কাজ করার সময় আমাদের ককসবাজারের এ প্রতিনিধির কথা হলে তারা হাস্যেজ্জল কন্ঠে জানান, ৩০/৪০কড়া জমিতে এবার আলু চাষ করছে তারা। প্রায় অর্ধ শতাধিক কেজির মত সার,বিষ ও ভিটামিন দেওয়া হয়েছে এ চাষাবাদে। এবার আলুর ফলন হবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন। অন্যদিকে ইসলামাবাদ পাহাঁশিয়াখালী থেকে দরগাহ পাড়ায় আসা বয়োবৃদ্ধ আবদু শুক্কুর ও সুফিয়া খাতুন জানান, এক খানি জমিতে এবার আলু চাষ, আধা খানি জমিতে মরিচ চাষ করছে তারা। ক্ষেত খামার ও ফসলের সাথে জড়িত তারা দীর্ঘ ১০/১৫ বছর ধরে। তিনি আক্ষেপ কন্ঠে আরো জানান, কৃষি সংশ্লিষ্ট কর্মকতারা যদি শীতকালীন সবজি চাষাবাদের জমিতে এসে খোঁজ খবর রাখতো, তাহলে এলাকার লোকজন উপকৃত হওয়ার পাশাপাশি ফসলের ক্ষেত্রে অনেকটা লাভবান হত। ইসলামাবাদ খোদাইবাড়ী এলাকায় আলু চাষ করা সাবিনা ইয়াছমিন জানান, ব্যাপক উৎসাহ নিয়ে দ্বিতীয় বারের মত সবজি চাষাবাদে হাত দিয়েছে। নানা কষ্টের মাধ্যমে পরিচর্যা করে ভাল আলুর ফলের অপেক্ষায় প্রহর গুনছে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •