নিজস্ব প্রতিবেদক:
সাবেক সেনা কর্মকর্তা মেজর সিনহা মোহাম্মদ রাশেদ খান হত্যা মামলার আসামী ওসি প্রদীপ কুমার দাশসহ ৩ আসামিকে ৭ দিন এবং ৪ আসামীকে জেলগেটে জিজ্ঞাসাদের জন্য প্রক্রিয়া শুরু করেছে র‌্যাব। তবে এখনো আসামীদের রিমান্ডে নেয়া হয়নি।

র‌্যাব-১৫ এর উপ অধিনায়ক মেজর মেহেদী হাসান এ খবর নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, আদালতের নির্দেশনা অনুযায়ী আসামীদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে।

সিনহা হত্যা মামলার আসামীদের রিমান্ডের বিষয়ে আদালত থেকে কোন ধরণের কাগজপত্র এখনো কারা কর্তৃপক্ষের কাছে পৌঁছেনি বলে জানিয়েছেন কক্সবাজার জেলা কারাগারের সুপার মো: মোকাম্মেল হোসেন।

তিনি জানিয়েছেন, মামলার রিমান্ডের আসামী বের করার কোন ধরণের অনুমতি এখনো হাতে পৌঁছেনি। আদালত থেকে আদেশের কপি হাতে আসলে পরবর্তী ব্যবস্থা নেয়া হবে।

গত বৃহস্পতিবার বিকালে মেজর সিনহা হত্যা মামলার আসামী ওসি প্রদীপসহ ৭ আসামী কক্সবাজার সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতে আত্মসমর্পন করলে কক্সবাজার র‌্যাবের পক্ষ থেকে ১০ দিনের রিমান্ড আবেদন করেন। শুনানী শেষে ওসি প্রদীপ সহ ৩জনকে ৭ দিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত। এছাড়া বাকি চার আসামিকে দুদিন করে জেলগেটে জিজ্ঞাসাবাদ করার অনুমতি দেওয়া হয়েছে।

কক্সবাজার জেলা ও দায়রা জজ আদালতের পিপি এডভোকেট ফরিদুল আলম জানিয়েছেন, ‘বৃহস্পতিবার বিকালে কক্সবাজার র‌্যাব-১৫ এর পক্ষ থেকে আদালতে ১০ দিনের রিমান্ড আবেদনের প্রেক্ষিতে সিনহা হত্যা মামলার আসামী ওসি প্রদীপসহ ৩জনকে ৭দিন রিমান্ড ও বাকী ৪জন আসামীকে জেলগেটে জিজ্ঞাসাবাদের আদেশ দেন। জিজ্ঞাবাদের আদেশ পাওয়া ৪জনকেও রিমান্ড মন্জুর করার জন্য রাতে র‌্যাবের পক্ষ থেকে আরও একটি পিটিশন দায়ের করার কথা শুনেছি। তবে আদালত আদেশ দিয়েছে কিনা জানি না। তখন আমি উপস্থিত ছিলাম না।

প্রসঙ্গত, শুক্রবার (৩১ আগস্ট) রাত সাড়ে ১০টার দিকে কক্সবাজার-টেকনাফ মেরিন ড্রাইভের বাহারছড়া ইউনিয়নের শামলাপুর চেকপোস্টে পুলিশের গুলিতে নিহত হন মেজর সিনহা মোহাম্মদ রাশেদ খান।