সিবিএস ডেস্ক:
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে খোলা চিঠি দিয়েছেন গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী। ৮ পৃষ্ঠার ২৬৬৪ শব্দের এই খোলা চিঠি সোমবার প্রধানমন্ত্রীর দফতরে জমা দেয়া হয়েছে। গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রেস উপদেষ্টা জাহাঙ্গীর আলম মিন্টু এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

চিঠির বিষয়ে ডা. জাফরুল্লাহ লিখেছেন- ‘প্রিয় প্রধানমন্ত্রীর কাছে একজন নাগরিকের খােলা চিঠি’। চিঠিতে তিনি প্রধানমন্ত্রীকে ঈদের দিন বেগম খালেদা জিয়ার বাসভবনে তাকে (খালেদা জিয়া) দেখতে যাওয়ার অনুরোধ করেছেন।

তিনি লিখেছেন, ‘ঈদের দিন সময় করে সুস্বাস্থ্য কামনা করতে খালেদা জিয়ার বাসস্থানে যান। এতে দেশবাসী খুশি হবে এবং বঙ্গবন্ধু হেসে বলবেন, ভালো করেছিস, মা।’

চিঠির শুরুতে তিনি লিখেছেন, ‘অতীতে আপনার সাথে সাক্ষাতের চেষ্টা করে ব্যর্থ হয়ে এই খােলা চিঠি লিখছি। আশা করি, প্রধানমন্ত্রীর দফতরের কেউ না কেউ আমার এই খােলা চিঠিটি আপনার নজরে আনবেন এবং আমি একটি প্রাপ্তি স্বীকারপত্র পাব। প্রিয় প্রধানমন্ত্রীর কাছে এটাই একজন নাগরিকের আকাঙ্ক্ষা।’

আগামী মাসে নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রের সুবিধা নিয়ে শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত ও কেন্দ্রীয় অক্সিজেন সুবিধাসহকারে করোনা সাধারণ ওয়ার্ড চালু করবে গণস্বাস্থ্য কেন্দ্র জানিয়ে ডা. জাফরুল্লাহ বলেন, ‘এতে রোগীদের দৈনিক তিন হাজার টাকার মতো খরচ পড়বে। প্রধানমন্ত্রী আপনি কি তার উদ্বোধন করবেন?’

রোগীরা হাসপাতালে ভর্তির জন্য কোনও দেশে প্রধানমন্ত্রী, স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় বা স্বাস্থ্য অধিদফতরের অনুমোদন লাগে না বলে দাবি করে চিঠিতে ডা. জাফরুল্লাহ বলেন, ‘কোভিড-১৯ আক্রান্ত হোক বা অন্য কোনও রোগে আক্রান্ত রোগীদের হাসপাতালে ভর্তির সিদ্ধান্ত নেন ওই হাসপাতালে পরিচালক। কিংবা কোভিড-১৯ আক্রান্ত রোগী হাসপাতালে ভর্তি হতে পারবে কিনা তার সিদ্ধান্ত দেয় স্বাস্থ্য অধিদফতর। এই রকম সিদ্ধান্ত পৃথিবীর অন্য কোনও দেশে নেই। অপূর্ব সিদ্ধান্ত। কেন্দ্রিকতা দুর্নীতির সহজ বাহন।’

প্রধানমন্ত্রীর উদ্দেশে ডা. জাফরুল্লাহর লেখা চিঠিতে রাজনৈতিক বিষয়াবলিও স্থান পেয়েছে। তিনি লিখেছেন, ‘২০ বছর ধরে আমি বলে আসছি পুরানা সহকর্মী এবং অন্য সব রাজনীতিবিদদের সঙ্গে নিয়ে আপনাকে অগ্রসর হতে হবে। তাদেরকে নিশ্চিত করতে হবে সুশাসনের লক্ষ্যে আগামী নির্বাচন হবে সুষ্ঠু পরিচ্ছন্ন নির্বাচন। কোনো চালাকির নির্বাচন নয়, দিনের নির্বাচন রাতে নয়। হয়তো বা সফলতা আপনার জন্য অপেক্ষায় রয়েছে।’

গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের চালু করতে যাওয়া আইসিইউ হাসপাতাল উদ্বোধনের আমন্ত্রণ জানিয়ে প্রধানমন্ত্রীর উদ্দেশে জাফরুল্লাহ লেখেন, আগামী মাসে নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রের (আইসিইউ) সুবিধা নিয়ে শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত ও কেন্দ্রীয় অক্সিজেন সুবিধা সমেত করোনার সাধারণ ওয়ার্ড চালু করবে ধানমন্ডি গণস্বাস্থ্য কেন্দ্র। রোগীদের সর্বসাকুল্যে দৈনিক খরচ পড়বে তিন হাজার টাকার অনধিক।

আপনি কি এই অত্যাধুনিক শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত ও কেন্দ্রীয় অক্সিজেন সরবরাহ সুবিধা সমেত জেনারেল ওয়ার্ডের উদ্বোধন করবেন?

নিজেকে বোকা মুক্তিযোদ্ধা উল্লেখ করে তিনি লিখেছেন, ‘প্রধানমন্ত্রীর কাছে একজন বােকা মুক্তিযােদ্ধার কামনা, দেশের উন্নয়নের জন্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রী আপনি কঠিন পরিশ্রম করেছেন, কিন্তু লক্ষ্য থেকে ক্রমে দূরে সরে যাচ্ছেন। সঙ্গে বাড়ছে আপনার একাকীত্ব। দেশের এই কঠিন সময়ে আপনার নিজ দলের পুরানাে সহকর্মী এবং অন্য রাজনীতিবিদদের সঙ্গে নিয়ে আপনাকে অগ্রসর হতে হবে। তাদের নিশ্চিত করতে হবে সুশাসনের লক্ষ্যে আগামী নির্বাচন হবে সুষ্ঠ পরিচ্ছন্ন নির্বাচন। কোনো চালাকির নির্বাচন নয়, দিনের নির্বাচন রাতে নয়। হয়তােবা সফলতা আপনার জন্য অপেক্ষায় রয়েছে।’