পেকুয়া সংবাদদাতা:
পেকুয়ায় ২৫টি চোরাই গর্জন (বল্লি) গাছ উদ্ধার করেছে বনবিভাগ। বুধবার (২৪অক্টেবর) সকালে ও বিকালে উপজেলার বারবাকিয়া ও শিলখালীতে পৃথক দুটি অভিযান চালিয়ে এসব গাছ উদ্ধার করেন। এসময় চোরাই গাছ পরিবহণের দায়ে একটি ট্রলি গাড়িও জব্দ করা হয়।

বনবিভাগ সূত্র জানায়, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে বুধবার সকালে বারবাকিয়া বাজারের উত্তর পাশে সড়ক থেকে ৫টি চোরাই গর্জন গাছসহ একটি ট্রলি গাড়ি জব্দ করা হয়। একইদিন বিকেলে শিলখালী ইউনিয়নের জারুলবুনিয়া এলাকা থেকে রাস্তার পাশে পাচারের জন্য মজুদ রাখা ২০টি চোরাই গর্জন গাছ উদ্ধার করা হয়। চট্টগ্রামের দক্ষিণ বনবিভাগের বারবাকিয়া রেঞ্জ কর্মকর্তা আবদুল গফুর মোল্লার নেতৃত্বে একদল বনরক্ষীরা এ অভিযান দুটি চালান।

বনবিভাগের এ অভিযানকে সাধুবাদ জানিয়ে স্থানীয় বাসিন্দারা বলেন, বারবাকিয়া রেঞ্জ কর্মকর্তা আবদুল গফুর মোল্লা যোগদানের পর থেকে পেকুয়া উপজেলার বারবাকিয়া, টইটং ও শিলখালী ইউনিয়নে গাছ চুরি, পাহাড় কাটা ও ছড়া থেকে বালু উত্তোলন দৃশ্যমানভাবে কমে গেছে। দুষ্কৃতিকারীদের বিরুদ্ধে বনবিভাগের অভিযান জোরদারের ফলে বনভূমি সবুজে আচ্ছাদিত রয়েছে। সংরক্ষিত বনভূমি রক্ষায় বনবিভাগের অভিযান আরো জোরদার করা হউক।

বারবাকিয়া রেঞ্জ কর্মকর্তা আবদুল গফুর মোল্লা বলেন, গোপন সংবাদে ভিত্তিতে সংরক্ষিত বনের গাছ পাচারের খবর পেয়ে অভিযান দুটি চালানো হয়। এসময় ২৫টি গর্জন (বল্লি) উদ্ধার ও একটি ট্রলি গাড়ী জব্দ করা হয়। এব্যাপারে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে।