এ কে এম ইকবাল ফারুক, চকরিয়া:

মেডিকেল ভর্তি পরীক্ষায় মেধা তালিকায় স্থান করে নিয়ে ঢাকা মেডিকেল কলেজে ভর্তির সুযোগ পেয়েছে কক্সবাজারের চকরিয়ার কৃতি শিক্ষার্থী ইশতিয়াক উদ্দিন মোহাম্মদ তাসকিন। গত মঙ্গলবার (১৫ অক্টোবর) বিকালে প্রকাশিত মেডিকেল ভর্তি পরীক্ষার ফলাফলে সে সারাদেশে মেধা তালিকায় ১৩০তম স্থান অর্জন করে। তাঁর টেস্ট স্কোর ৭৯.৫০। তাসকিন উপজেলার লক্ষ্যারচর ইউনিয়নের ৫ নম্বর ওয়ার্ডের মৌলভীপাড়া এলাকার বাসিন্দা অবসরপ্রাপ্ত সরকারী কর্মকর্তা আলহাজ্ব আব্দুল মতিন ও গৃহিনী মনিরুন্নেছা বেগম মুন্নির কনিষ্ঠ পুত্র। এছাড়া তাসকিন মাদকদ্রব্য অধিদপ্তরের অবসরপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মরহুম আশেক আহামদের নাতী ও চট্টগ্রাম বেপজা পাবলিক স্কুল এন্ড কলেজের উদ্ভিদবিদ্যা বিভাগের বিভাগীয় প্রধান অধ্যাপক আব্দুল মোমেনের ভাতিজা।

মেধাবী ছাত্র ইশতিয়াক উদ্দিন মোহাম্মদ তাসকিনের পারিবারিক সূত্র জানায়, তাসকিন চট্টগ্রাম কলেজিয়েট স্কুল থেকে গোল্ডেন জিপিএ-৫ পেয়ে এসএসসি ও চট্টগ্রাম কলেজ থেকে পরীক্ষায় গোল্ডেন জিপিএ-৫ পেয়ে এইচএসসি পাশ করার পর মেডিকেল ভর্তি পরীক্ষায় অংশ নেয়। মেধাবী শিক্ষার্থী তাসকিন পঞ্চম শ্রেণীর পিএসসি ও অষ্টম শ্রেণীর জেএসসি পরীক্ষায় সফলতার সঙ্গে ট্যালেন্টপুলে বৃত্তি লাভ কৃতিত্বের স্বাক্ষর রেখেছিলেন।

মেধাবী ছাত্র তাসকিন ভাল ফলাফলের জন্য নিজের অনুভূতি ব্যক্ত করে বলেন, কাঙ্খিত ফল পেয়ে অবশ্যই আমি ভীষণ খুশি। চিকিৎসক হয়ে দেশের মানুষের সেবা করার সুযোগ পাব এর চেয়ে আর খুশির খবর কি হতে পারে। ভাল ফলাফলের জন্য শিক্ষক, মা-বাবা, ভাই-বোন ও চাচাসহ সকলের অবদানের কথা শ্রদ্ধার সাথে স্বরণ করেন মেধাবী শিক্ষার্থী তাসকিন বলেন, ভবিষ্যতে আমি চিকিৎসক হয়ে মানবতার সেবায় নিজেকে সম্পৃক্ত করতে চাই।

প্রসঙ্গত: চলতি বছরের ১১ অক্টোবর সারাদেশে একযোগে এমবিবিএস ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। এবারের এমবিবিএস প্রথম বর্ষের ভর্তি পরীক্ষায় সারাদেশ থেকে অংশ নেয়া ৬৯ হাজার ৪০৫ জনের মধ্যে উত্তীর্ণ হয় ৪৯ হাজার ৪১৩ জন। তাদের মধ্যে ২৬ হাজার ৫৩১ জন মেয়ে এবং ২২ হাজার ৮৮২ জন ছেলে শিক্ষার্থী রয়েছে।