বার্তা পরিবেশক :
কক্সবাজার শহরের কক্সবাজার সিটি কলেজের পেছনের গরুরহালদা এলাকায় পিতৃহীন দুই এতিম ছেলে-মেয়ের পৈত্রিক জায়গা করে পাকা বাড়ি নির্মাণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। ওই এলাকার মৃত মাহমুদুর রহমানের পুত্র আবদুর রহিম, এনামুল হক ও জসিম উদ্দীনের বিরুদ্ধে এই অভিযোগ উঠেছে। সম্পর্কে তারা ওই এতিমদের চাচা-জেঠা। ইতিমধ্যে ওই জায়গাতের নির্মাণাধীন পাকা বাড়ির ছাদও নির্মাণ করে ফেলা হয়েছে। এতে কক্সবাজার উন্নয়ন কর্তৃপক্ষসহ সংশ্লিষ্ট কোনো দপ্তরের অনুমতিবিহীন এই বাড়ি করা হচ্ছে।

অভিযোগে জানা যায়, কক্সবাজার সিটি কলেজের পেছনের গরুরহালদা এলাকার ফরিদুল আলম প্রকাশ ফরিদ ড্রাইভার ২০০৯ সালে সড়ক দুর্ঘটনায় মারা যায়। বছর দু’য়েক আগে মারা যান তার পিতা মাহমুদুর রহমান। পিতা মারা যাওয়ার পর ভাইদের মধ্যে তাদের বসতভিটার জায়গা ভাগাভাগি করা হয়। এতে ফরিদের অংশ পায় তার স্ত্রী ও সন্তানেরা। অন্যদিকে ভাগে পাওয়া জায়গার অংশ বিক্রি করে দেয় আবদুর রহিম। অন্য ভাইয়েরাও তাদের অংশ দখল করে বাড়ি নির্মাণ করেছে। কিন্তু ফরিদের স্ত্রী মোহছেনা বেগম তার দুই ছেলে-মেয়ে নিয়ে উপজেলা পরিষদের পেছনে স্বামীর ক্রয়কৃত জায়গাতে ঘর বসবাস করে আসছে। সে কারণে স্বামীর পৈত্রিক জায়গাটি খালি ছিলো। এই সুযোগে অন্য ভাইদের ইন্ধনে আবদুর রহিম ওই জায়গাতে বহুতল পাকা বাড়ি নির্মাণ কাজ শুরু করে। ইতিমধ্যে বাড়ির ছাদও সম্পন্ন করা হয়েছে। তবে সেখানে না থাকায় তা এতোদিন জানতে পারেনি ফরিদের স্ত্রী ও সন্তানেরা।

মৃত ফরিদুল আলমের স্ত্রী মোহছেনা বেগম অভিযোগ করেন, তার স্বামী ফরিদুল আলম অন্য চারভাইয়ের মতো পৈত্রিক জায়গার সমপরিমাণ অংশ পায়। কিন্তু উপজেলা পাড়ায় স্বামীর ক্রয়কৃত জায়গা বসবাস করছিল তারা। এই সুযোগে গোপনে সেই জায়গা দখল করে বাড়ির নির্মাণ করছে আবদুর রহিম। খবর পেয়ে বাধা দিলে উল্টো হুমকি দিচ্ছে আবদুর রহিমসহ অন্য ভাইয়েরা। এই নিয়ে স্থানীয়ভাবে সালিশ হলেও তা মানছে না আবদুর রহিম।

এদিকে জানা গেছে, আবদুর রহিম যে পাকা বহুতল বাড়ি নির্মাণ করছে তার জন্য কক্সবাজার উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ সংশ্লিষ্ট কোনো দপ্তরের অনুমতি নেয়নি। তিনি সব কিছু গোপন করে অনেকটা রাতের আঁধারে বাড়িটি নির্মাণ করে যাচ্ছে।

মৃত ফরিদুল আলমের স্ত্রী মোহছেনা বেগম জানিয়েছেন, তার অসহায়ত্বের সুযোগ নিয়ে আবদুর রহিম জমিটি দখল করে ফেলেছে। এতে তার দুই এতিম ছেলে-মেয়ের ভবিষ্যৎ অন্ধকার হয়ে পড়েছে। তাই তিনি এ ব্যাপারে প্রশাসনের সহযোগিতা কামনা করেছেন।