কক্সবাজারের কয়েকটি স্থানীয় পত্রিকা ও অনলাইনে প্রকাশিত ‘মহেশখালীতে টিকাদান কেন্দ্রে হামলা, স্বাস্থ্য সহকারীসহ আহত ৫’ শীর্ষক সংবাদটি আমার দৃষ্টিগোচর হয়েছে। সংবাদে উল্লেখিত হামলা ও আহতদের বিষয়টি মিথ্যা। মূলত টিকাদান কেন্দ্রে টিকা দেয়াকে কেন্দ্র করে স্বাস্থ্য সহকারী ও আমার স্ত্রীর সামান্য কথা কাটাকাটি হয়েছে। টিকার কার্ড আনা-না আনাকে কেন্দ্র এই কথা কাটাকাটি হয়। পরে বিষয়টি আমরা নিজেদের মধ্যে সমঝোতা করে ফেলি।

কিন্তু সেই সামান্য ঘটনাটিকে ভিন্নখাতে প্রবাহিত করার জন্য মিথ্যা তথ্য দিয়ে সংবাদ পরিবেশনে আমি বিস্মিত হয়েছি। মূলত ওই স্বাস্থ্য সহকারি আমাদের নিকতাত্মীয়। তিনি যে কেন্দ্রে টিকাদান করছিলেন সে কেন্দ্রটিও আমার স্ত্রীর নিকাতত্মীয় হওয়ায় হিরুর স্ত্রীর সাথে কথা বাড়াবাড়ি হয়। আত্মীয় হিসেবে তাৎক্ষণিক আমরা নিজেদের মধ্যে ভুল বুঝাবুঝির সমাধান করে ফেলি। কিন্তু একটি পক্ষ সামাজিকভাবে দীর্ঘদিন ধরে আমাকে হেয় প্রতিপন্ন করার জন্য অপচেষ্টা করে আসছিল। মূলত ওই চক্রটি এই ঘটনাটি ভিন্নখাতে প্রবাহিত করতে উদ্দেশ্যমূলক ভাবে আমাকে যুবদল ক্যাডার, বহু মামলার আসামীসহ নানা অপবাদ দিয়ে সংবাদ পরিবেশন করেছে। আমি একজন শিক্ষিত ব্যক্তি। দীর্ঘদিন আমি মহেশখালীতে সুনামের সাথে ওষুধ কোম্পানিতে কর্মরত রয়েছি।

পরিশেষে আমি এই সংবাদের প্রতিবাদ জানাচ্ছি এবং এ ব্যাপারে কাউকে বিভ্রান্ত না হওয়ার অনুরোধ করছি।

প্রতিবাদকারী
জয়নাল আবেদীন
সোনারপাড়া, কালারমারছড়া, মহেশখালী।