জাহেদুল ইসলাম, লোহাগাড়া:

চট্টগ্রামের লোহাগাড়া উপজেলার চুনতির জাঙ্গালিয়া এলাকায় যাত্রীবাহী বাসের সঙ্গে মাইক্রোবাসের মুখোমুখি সংঘর্ষে বুধবার দিবাগত রাতে প্রায় ১টায় মা-মেয়েসহ আটজন নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় আরো ৫ জন গুরুতর হওয়ার সংবাদ পাওয়া গেছে। হতাহতদের পরিচয় নিশ্চিত হওয়া গেছে । নিহতদের মরদেহ হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। আহতদের বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে।দুর্ঘটনা কবলিত গাড়ি দুইটি ঘটনাস্থলে রয়েছে। চালক ও হেলপার জীবিত আছে।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন চকরিয়া হাইওয়া থানার ওসি মো: সাইদুল। খবর পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন কুমিল্লা হাইওয়ে রিজিওনের এসপি মো: নজরুল ইসলাম ও লোহাগাড়া থানার ওসি মো: সাইফুল ইসলাম। চকরিয়া থানা পুলিশও ঘটনার বিষয়ে খোঁজ খবর নিচ্ছে।

সরেজমিন পরিদর্শনে গিয়ে জানা যায়, কক্সবাজার মূখি রিলাক্স পরিবহনের বাস (চট্টমেট্রা-১১-১১৯৬) ও চট্টগ্রামুখি হাইয়েসের সঙ্গে (চট্টমেট্রা-১১-৩৭৩৪) মুখোমুখি সংঘর্ষ ঘটে। এতে ঘটনাস্থলে মাইক্রোবাসের ৮ যাত্রী মারা যায়। সেখানে থাকা আরো ৫ যাত্রী আহত হয়েছে। তাদের উদ্ধার করে লোহাগাড়া, চকরিয়াসহ বিভিন্ন হাসপাতালে নেওয়া হয়েছে। আহতদের কয়েকজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে জানা গেছে। তাদের সঠিক নাম ঠিকানা পাওয়া যায়নি।

নিহত আটজনের পরিচয় নিশ্চিত করেছে পুলিশ।

তাঁরা হলেন-লোহাগাড়া উপজেলার বড়হাতিয়া লস্কর পাড়া এলাকার হজেরা বেগম (২৬), চুনতি খলিফার পাড়া এলাকার আবু তাহের (২২), কক্সবাজার সদরের পিএমখালীর ছনখোলা নয়াপাড়া এলাকার মো. জিসানের স্ত্রী তসলিমা আক্তার (২০), তাঁর শিশু মেয়ে সাদিয়া (২), তসলিমা আক্তারের মা হাসিনা মমতাজ (৪৫), চকরিয়ার খুটাখালীর উত্তর মেধাকচ্ছপিয়া এলাকার বান্ডু মিয়ার ছেলে মো. নুরুল হুদা (২৫), চট্টগ্রামের লোহাগাড়ার সিকদারপাড়া এলাকার মো. সিরাজুল ইসলামের ছেলে আফজাল হোসেন সোহেল (৩০) ও বাঁশখালীর শেখেরখীল এলাকার মো. সিদ্দিকের ছেলে মো. সায়েম (২২)।

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, বুধবার রাত ১টার দিকে মহাসড়কের লোহাগাড়ার চুনতির জাঙ্গালিয়া নামক এলাকায় ঢাকা থেকে ছেড়ে আসা বিলাসবহুল রিলাক্স পরিবহনের একটি যাত্রীবাহী এসি বাসের সঙ্গে কক্সবাজার থেকে ছেড়ে আসা যাত্রীবাহী একটি মাইক্রোবাসের মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে ঘটনাস্থলেই মা-মেয়েসহ আটজন নিহত হন। সংঘর্ষে মাইক্রোবাসটি দুমড়ে মুচড়ে যায়।

চকরিয়ার চিরিংগা হাইওয়ে পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ ইন্সপেক্টর সাইদুল ইসলাম বলেন, বাস-মাইক্রোবাসের মুখোমুখি সংঘর্ষের খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে যায়। দুর্ঘটনায় মা-মেয়েসহ আটজন নিহত হয়েছেন। নিহত ব্যক্তিদের পরিচয় মিলেছে। তাঁদের মরদেহ ময়না তদন্তের জন্য হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে । আহত ব্যক্তিদের চিকিৎসা চলছে।