সিবিএন ডেস্ক:
বর্জ্য শোধনাগার (ইটিপি) অকার্যকর রেখে অপরিশোধিত তরল বর্জ্য নদীতে ফেলে দূষণের দায়ে খাদ্যপণ্য উৎপাদন ও বাজারজাতকারী প্রতিষ্ঠান ফুলকলি ব্রেড অ্যান্ড বিস্কুট ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেডকে ১০ লাখ টাকা জরিমানা (ক্ষতিপূরণ আরোপ) করেছে পরিবেশ অধিদফতর।

বুধবার (২৭ মার্চ) শুনানি শেষে ফুলকলি ব্রেড অ্যান্ড বিস্কুট ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেডকে জরিমানার আদেশ দেন পরিবেশ অধিদফতর চট্টগ্রাম অঞ্চলের পরিচালক মোহাম্মদ মোয়াজ্জম হোসাইন।

এর আগে পটিয়া উপজেলার জঙ্গলখাইন এলাকায় ফুলকলি ব্রেড অ্যান্ড বিস্কুট ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেডের ফ্যাক্টরী পরিদর্শন করে পরিবেশ দূষণের প্রমাণ পায় পরিবেশ অধিদফতর।

পরিবেশ অধিদফতর চট্টগ্রাম অঞ্চলের সহকারী পরিচালক মুক্তাদির হাসান বাংলানিউজকে বলেন, ‘বর্জ্য শোধনাগার (ইটিপি) অকার্যকর রেখে অপরিশোধিত তরল বর্জ্য নদীতে ফেলে দূষণের দায়ে ফুলকলি ব্রেড অ্যান্ড বিস্কুট ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেডকে ১০ লাখ টাকা ক্ষতিপূরণ আরোপ করা হয়েছে। এক মাসের মধ্যে ইটিপি কার্যকর করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে প্রতিষ্ঠানটিকে।’

মুক্তাদির হাসান বলেন, ‘ফুলকলি ব্রেড অ্যান্ড বিস্কুট ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেডের ফ্যাক্টরীর অপরিশোধিত তরল বর্জ্যের কারনে স্থানীয় বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা সমস্যার সম্মুখীন হচ্ছিলেন। জলজ জীববৈচিত্র্য ও বাস্তুসংস্থান বাধাগ্রস্ত হচ্ছিল।’

বে ফিশিং রিফাইনারিকে ৪ লাখ ৮০ হাজার টাকা জরিমানা

এদিকে নগরের পতেঙ্গা থানার এয়ারপোর্ট রোড এলাকায় থাকা বে ফিশিং করপোরেশন নামক একটি এডিবেল অয়েল রিফাইনারি কারখানাকে ৪ লাখ ৮০ হাজার টাকা জরিমানা (ক্ষতিপূরণ আরোপ) করেছে পরিবেশ অধিদফতর।

বুধবার (২৭ মার্চ) শুনানি শেষে প্রতিষ্ঠানটিকে জরিমানার আদেশ দেন পরিবেশ অধিদফতর চট্টগ্রাম মহানগরের পরিচালক আজাদুর রহমান মল্লিক।

এর আগে ১২ মার্চ বে ফিশিং করপোরেশন পরিদর্শন করে পরিবেশ অধিদফতরের পরিদর্শন টিম। ওইদিন ইটিপি আউটলেট থেকে নমুনা সংগ্রহ করে পরিদর্শন টিম। পরীক্ষা শেষে দূষণের প্রমাণ পাওয়ায় প্রতিষ্ঠানটিকে বুধবার শুনানিতে হাজির হওয়ার জন্য নোটিশ দেওয়া হয়।

আজাদুর রহমান মল্লিক বাংলানিউজকে বলেন, ‘কর্ণফুলী নদীতে অপরিশোধিত বর্জ্য ফেলে দূষণের দায়ে বে ফিশিং করপোরেশনকে ৪ লাখ ৮০ হাজার টাকা ক্ষতিপূরণ আরোপ করা হয়েছে।’