নিজস্ব প্রতিবেদক:
টেকনাফে ইলেশকন ইঞ্জিনিয়ারিং ও ভোট গ্রহণ কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে নির্বাচনী আইনভঙ্গ করে ফলাফল দেয়ার অভিযোগ এনেছেন ভাইস-চেয়ারম্যান প্রার্থী মাইক প্রতীকের মাওলানা রফিক উদ্দিন। তিনি টেকনাফের হোয়াইক্যং ও হ্নীলা ইউনিয়নের বিভিন্ন কেন্দ্রের ভোট পূনরায় গণনার দাবি জানিয়েছেন।
এসব অভিযোগে বুধবার (২৭ মার্চ) কক্সবাজার রিটার্নিং কর্মকর্তা ও অতিরিক্তি জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মোহাম্মদ মাসুদুর রহমান মোল্লা বরাবরে লিখিত আবেদন করেন।
আবেদনে মাওলানা রফিক উদ্দিন বলেন, গত রবিবার অনুষ্ঠিত টেকনাফ উপজেল নির্বাচনে মাইক মার্কা প্রতীক নিয়ে প্রতিদ্বন্দ্বীতা করেছিলাম। এই নির্বাচনে আমি ভোটে বিজয়ী হলেও নির্বাচন কমিশনের দায়িত্বপ্রাপ্ত ভোট গ্রহণ কর্মকর্তারা প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীর সাথে যোগসাজশ করে হোয়াইকং ইউনিয়নের আলহাজ¦ আলী আছিয়া নং ভোট কেন্দ্রে ভোট অবৈধ ঘোষণা করে। উক্ত কেন্দ্রে ফলাফল প্রদানের সময় আমার পোলিং এজেন্টদের আপত্তি গ্রহণ করেন নি। এছাড়া হোয়াইক্যং ও হ্নীলা দুই ভোট কেন্দ্রের বিভিন্ন ইউনিয়নের বিভিন্ন কেন্দ্রের অনিয়ম ও কারচুপি পরিলক্ষিত হয়। এতে বিভিন্ন ব্যালেট পেপার বান্ডিলের মধ্যে আমার মাইক প্রতিকের সিলমারা ভোট ঢুকিয়ে দিয়ে পরিকল্পিতিভাবে আমাকে পরাজিত করে। উক্ত দুই ইউনিয়নের বিভিন্ন ভোট কেন্দ্রের পুনরায় ভোট গণনা করে রহস্য উদঘাটনের আহবান জানান। তিনি আরো দাবী করেন, ভোটগ্রহণ কর্মকর্তারা ফলাফল ইঞ্জিনিয়ারিংয়ের মাধ্যমে আমার বিজয় কেড়ে নিয়ে অন্যের হাতে তুলে দিয়েছেন।
এ ব্যপারে রিটার্নিং কর্মকর্তা মোহাম্মদ মাসুদুর রহমান মোল্লা জানান, ওই প্রার্থীর লিখিত আবেদন সম্পর্কে নির্বাচন কমিশনকে জানানো হয়েছে। তারা যে সিদ্ধান্ত দিবেন, সেই অনুযায়ী ব্যবস্থা নেয়া হবে।