সংবাদদাতাঃ
কক্সবাজার সদরের চৌফলদন্ডীর বৃহত্তর রাখাইন পল্লীর সর্বস্তরের বাসিন্দাদের মন জয় করেছে চশমা প্রতীকের ভাইস চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী কাইয়ুম উদ্দিন।
২৭ মার্চ দিনব্যাপী গণসংযোগ, মতবিনিময় ও পথসভায় সেটি প্রমাণিত হয়েছে।
গণসংযোগকালে কাইয়ুম উদ্দিনের মাথায় হাত বুলিয়ে দোয়া করে দিয়েছে রাখাইন সম্প্রদায়ের একমাত্র নির্বাচিত জনপ্রতিনিধি উচাচিং মেম্বারের বৃদ্ধ মা।
স্থানীয় রাখাইন সম্প্রদায়ের লোকজন জানিয়েছে, মিয়ানমারে সাম্প্রদায়িক সহিংসতার কারণে কক্সবাজারের রাখাইন পল্লীগুলো যখন আতঙ্কে ছিল, ওই সময়ে কাইয়ুম উদ্দিন পুলিশসহ রাত জেগে তাদের এলাকা পাহারা দিয়েছিলেন। নিজে না ঘুমিয়ে রাখাইন পল্লীর বাসিন্দাদের নিরাপদে ঘুমানোর ব্যবস্থা করেছেন। সে কারণে বৃহত্তর রাখাইন পল্লীর মানুষগুলো তখন থেকে কাইয়ুম উদ্দিনের প্রতি দুর্বল। উপজেলা নির্বাচনে প্রার্থী হওয়ার খবরে রাখাইন পল্লীবাসীবাসী তাকে ভোট দেয়ার জন্য ঐক্যবদ্ধ হয়েছে বলেও জানিয়েছে স্থানিয়ারা।
ভাইস চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী কাইয়ুম উদ্দিন ঈদগাঁও কমিউনিটি পুলিশের সাধারণ সম্পাদক। এছাড়াও বিভিন্ন সামাজিক কর্মকান্ডের সাথে তিনি দীর্ঘদিন ধরে জড়িত রয়েছেন। যে কোনো অপরাধের বিরুদ্ধে তার ভূমিকা সবসময় কঠোর।
এদিকে, ২৭ মার্চ দুপুরে চৌফলদন্ডির রাখাইন পল্লীতে চশমা মার্কায় ভোট চেয়ে কাইয়ুম উদ্দিন গণসংযোগ করতে গেলে ব্যাপক সাড়া লক্ষ্য করা গেছে। তাকে বরণ করতে মেয়েরাও ঘর থেকে বেরিয়ে পড়ে। সেখানকার আবাল-বৃদ্ধ-বনিতা কাইয়ুম উদ্দিনের গণসংযোগে অংশগ্রহণ করতে দেখা যায়। তার ভোটের আবেদনে পাল্টে যায় রাখাইন পল্লীর ভোটের হিসাব নিকাশ। ৩১ মার্চ বাস্তবে সেটির প্রমাণ হবে মনে করছে ভোটাররা।