মুহাম্মদ আবু সিদ্দিক ওসমানী :

কক্সবাজারের ৫ টি উপজেলায় রোববার ২৪ মার্চ একত্রে উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের ভোট গ্রহন চলছে। উপজেলা গুলো হচ্ছে-মহেশখালী, পেকুয়া, রামু, উখিয়া ও টেকনাফ। ভোট মানেই গণমাধ্যম কর্মীদের খবর সংগ্রহের দারুন ব্যস্ততা। একের পর এক নিউজ আইটেম। কার আগে কে নিজ নিজ গণমাধ্যমে হট নিউজ গুলো পাঠাবেন, এ নিয়ে চলে নিরব প্রতিযোগিতা। গণমাধ্যম জগতের প্রবাদ বাক্য হলো-“যত বেশী নেতিবাচক ও অস্বাভাবিক কর্মকান্ড, তত বেশী গরম খবর”। কিন্তু ভোট কেন্দ্রে ভোটারের উপস্থিতিই যদি একেবারে নগণ্য হয়, সেখানে নিউজ আইটেম আর খুব একটা আর থাকেনা। গণমাধ্যম কর্মীদের ব্যস্ততাও আর বেশী থাকেনা। ব্যস্ততা নাথাকায় গণমাধ্যম কর্মীরা তারপরও ব্যস্ত দিন পার করছেন ভোটারশূন্য ভোটকেন্দ্রে নিজেরা সেলফি উঠিয়ে, সেগুলো আবার নিজেদের ফেসবুকে আপলোড করে। এরকম একজন সুপ্রতিষ্ঠিত গণমাধ্যম কর্মী হলেন-ইকরাম চৌধুরী টিপু। বিশিষ্ট সংবাদকর্মী, এনটিভি’র কক্সবাজার জেলা প্রতিনিধি ও দৈনিক দেশেবিদেশের বার্তাপ্রধান। আরেকজন হলেন-স্বনামধন্য গণমাধ্যম কর্মী বাংলাভিশন টিভি’র কক্সবাজার জেলা প্রতিনিধি ও দৈনিক রুপালীসৈকতের বার্তাপ্রধান মোর্শেদুর রহমান খোকন। তাঁরা দু’জন সহ একঝাঁক গণমাধ্যম কর্মী রোববার চলমান উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে একসাথে খবর সংগ্রহ করছেন রামু, উখিয়াতে। বেলা দু’টা পর্যন্ত তাঁরা ২৬ টি ভোট কেন্দ্রে পরিদর্শন করেছেন বলে সিবিএন-কে জানিয়েছেন। তাঁদের সাথে আলাপকালে তাঁরা দুজনেই বলেছেন-ভোট কেন্দ্র পরিদর্শনের প্রামাণ্য ডকুমেন্টের জন্যও এরকম সেলফি ও স্থির চিত্র দরকার। যেটা প্রয়োজন হলে, সময়মতো কাজে লাগানো যায়। এটাও সরেজমিনে সংবাদ সংগ্রহের একটা আবশ্যকীয় নীতি। এ দু’জন বিশিষ্ট গণমাধ্যম কর্মী বলেছেন-একদিকে, কেন্দ্রগুলোতে ভোটার নেই, অন্যদিকে-সাধারণ মানুষের মাঝে নির্বাচন নিয়ে কোন আগ্রহ পরিলক্ষিত হয়নি। তাঁরা দু’জনের সেলফি করা স্থিরচিত্রটা রামু উপজেলার খুনিয়াপালং ইউনিয়নের ধেচুয়া পালং সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে রোববার বেলা পৌনে ১১ টার দিকে তোলা। পেকুয়া প্রেস ক্লাবের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি ও দৈনিক আজাদী’র পেকুয়া অফিস প্রধান ছাফওয়ানুল করিম। সকাল সাড়ে ৮ টা থেকে বিকেল সোয়া দু’টা পর্যন্ত পেকুয়া’য় চলমান উপজেলা নির্বাচনের ২২ টি ভোট কেন্দ্র তিনি পরিদর্শন করেছেন বলে সিবিএন-কে জানান। বিশিষ্ট গণমাধ্যম কর্মী ছাফওয়ানুল করিম বলেন-পরিদর্শনকালে কোথাও তিনি আশানুরূপ ভোটারের উপস্থিতি লক্ষ্য করেননি। প্রায় ভোট কেন্দ্রের ভোটারবিহীন দৃশ্য তিনি ধারণ করে রেখেছেন। তাঁর মতে-প্রধান বিরোধীদল বিএনপি চলমান উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে অংশগ্রহণ নাকরায় অধিকাংশ ভোটার ভোট কেন্দ্রে যেতে আগ্রহ হারিয়ে ফেলেছে। ছাফওয়ানুল করিম বলেন-সেলফি করা স্থির চিত্রগুলো ডকুমেন্টারি নিউজ করার জন্য সময়মতো খুবই কাজে আসে। তার মতে, সেলফিতে নিজেরও সচিত্র প্রচার, আবার সংবাদ তৈরীতেও কাজে লাগনো যায়। ছাফওয়ানুল করিমের সেলফি করা ছবিটা পেকুয়া সদর ইউনিয়নের এক নম্বর ওয়ার্ডের গোয়াখালী সরকারি প্রাইমারি স্কুল ভোটকেন্দ্রে সকাল সাড়ে ১০ টায় তোলা। ভোটারবিহীন ভোটকেন্দ্রের গণমাধ্যম কর্মীদের সেলফি উঠিয়ে নিজস্ব পেইজে আপলোড করা সম্পর্কে কক্সবাজারের সিনিয়র সাংবাদিক অনলাইন নিউজ পোর্টাল কক্সবাজার ভিশন ডটকমের সম্পাদক আনসার হোসেন বলেন-সরেজমিনে সংবাদ সংগ্রহের ক্ষেত্রে নিজের ছবিসহ ভোটকেন্দ্রের ছবি ধারণ করে রাখা একজন গণমাধ্যম কর্মীর দায়িত্বের মধ্যে পড়ে। কারণ এটা একটা অত্যাবশ্যকীয় ডকুমেন্ট। আনসার হোসেন রসকরে আরো বলেন-মাইকের মাধ্যমে সবাই সবকিছু প্রচার করে, কিন্তু মাইকের নিজস্ব প্রচার কেউ করেনা। একইভাবে গণমাধ্যম কর্মীরা সবধরনের খবরাখবর প্রচার করে, কিন্তু গণমাধ্যম কর্মীদের খবর কেউ প্রচার করেননা। এ অবস্থায় প্রায় ভোটারশূণ্য ভোটার কেন্দ্রগুলোতে গিয়ে অলস সময় কাঠানোর চেয়ে সেলফি উঠিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ডাউনলোড করলে নিজেদের প্রচারের পাশাপাশি সাধারণ মানুষ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের বদৌলতে নির্বাচন চলাকালে ভোটকেন্দ্র গুলোর প্রকৃত অবস্থাসহ সহজে অনেক তথ্য জানার সুযোগ পাচ্ছেন।