মুহাম্মদ আবু সিদ্দিক ওসমানী :

কক্সবাজার সদর উপজেলা ও কুতুবদিয়া উপজেলার জন্য রোববার ঘোষিত সাধারণ ছুটি এখনো বাতিল করা হয়নি। এদু’টি উপজেলার সরকারি বেসরকারি আধাসরকারি সায়াত্বশাসিত প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তা কর্মচারীরা রোববার ২৪ মার্চ অফিস বন্ধ, নাকি খোলা থাকবে এনিয়ে দ্বন্দ্ব পড়েছেন। গত ১৯ মার্চ জনপ্রশাসন মন্ত্রনায়লয়ের বিধি অনুবিভাগের বিধি-৪ শাখার ১৭৩.০৮.০০১.১৭.৬৭ নম্বর স্মারকে উপ সচিব মাহফুজা আকতার স্বাক্ষরিত এক প্রজ্ঞাপনে পন্ঞ্চম উপজেলা পরিষদের তৃতীয় ধাপে অনুষ্ঠিতব্য দেশের ৭ টি বিভাগের ১২০ টি উপজেলায় নির্বাচনের দিন বাংলাদেশ নির্বাচন কমিশন সচিবালয়ের চাহিদা মোতাবেক সাধারণ ছুটি ঘোষনা করা হয়। এই প্রজ্ঞাপনে ১১৪ নম্বর ক্রমিকে কক্সবাজার সদর উপজেলা ও ১১৬ নম্বর ক্রমিকে কুতুবদিয়া উপজেলাতেও রোববার ২৪ মার্চ সাধারণ ছুটি ঘোষনার বিষয়টি উল্লেখ রয়েছে। কিন্তু প্রজ্ঞাপন জারীর অনেক আগে থেকেই ইসি কক্সবাজার সদর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের পূণঃ তফশীল ঘোষনা করে আগামী ৩১ মার্চ রোববার কক্সবাজার সদরে ভোট গ্রহনের দিন ধার্য করে দেয়। এছাড়া কুতুবদিয়া উপজেলা পরিষদের নির্বাচনের উপর গত ২১ মার্চ হাইকোর্ট থেকে স্থগিতাদেশ দেয়ায় কুতুবদিয়া উপজেলায় রোববার ভোটগ্রহন করা হচ্ছেনা। কিন্তু কক্সবাজার সদর ও কুতুবদিয়া উপজেলায় রোববার ২৪ মার্চ সাধারণ ছুটি ঘোষনা করা হলেও সেছুটি এখনো কি বহাল রয়েছে? নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক উপজেলা দু’টির বেশ ক’জন সরকারি কর্মচারী রোববার অফিস খোলা, নাকি বন্ধ-এনিয়ে দ্বন্দ্বে পড়েছেন। প্রজ্ঞাপনটি এখনো ইসি’র নিজস্ব ওয়েবপেজ, স্থানীয় অফিস গুলোর পেইজে দৃশ্যমান রয়েছে। কক্সবাজার সদর ও কুতুবদিয়া উপজেলার সাধারণ ছুটির বিষয়ে কোন সংশোধনী এ শনিবার বিকেল পর্যন্ত আসেনি বলে স্থানীয় বিভিন্ন অফিস সুত্রে জানা গেছে। এ বিষয়ে কক্সবাজার সদর উপজেলা ও কুতুবদিয়া উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের রিটার্নিং অফিসার ও কক্সবাজারের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মোঃ মাসুদুর রহমান মোল্লা’র কাছে শানিবার বিকেল ৪ টায় জানতে চাইলে তিনি সিবিএন-কে বলেন স্বাভাবিকভাবে যে উপজেলায় ভোট গ্রহন করা হয়, সে উপজেলায় সাধারণ ছুটি থাকে। কিন্তু কক্সবাজার সদর উপজেলা এবং কুতুবদিয়াতেও রোববার ২৪ মার্চ সাধারণ ছুটি ঘোষনা করে প্রজ্ঞাপন জারীর বিষয়টি এখনো তিনি পুরোপুরি জানেননা। তাই সংশ্লিষ্ট মন্ত্রনালয় থেকে খোঁজ খবর নিয়ে এবিষয়ে জ্ঞাত হবেন বলে জানান।