ফারুক আহমদ, উখিয়া :

উখিয়ার রতœাপালং ইউনিয়নের ৭নং ওয়ার্ডের তেলিপাড়া গ্রামের হতদরিদ্র প্রতিবন্ধি পরিবারের একমাত্র সহায় সম্বল বসতবাড়ি উচ্ছেদ করে জোরপূর্বক জবর দখলের মরিয়া হয়ে উঠেছে স্থানীয় প্রভাবশালী মহল। অসহায় প্রতিবন্ধি পরিবারের সদস্যরা তাদের মাথার গোঁজার সম্বলটুকু রক্ষা করার জন্য সংশ্লিষ্ট প্রশাসনের কাছে হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

জানা যায়, ওই গ্রামের রিক্সা চালক জলিল আহমদ (৫৫) ও দিনমজুর সুলতান আহমদ (৫৭) আপন দু’সহোদর। দীর্ঘ ৬০ বছরের অধিক সময় ধরে একটি পিএফ জায়গায় ছোট্ট ঝুপড়ি ঘরে বসবাস করে আসছে। এরই মধ্যে দু’পরিবারের রয়েছে রিক্সা চালক জলিল আহমদের পুত্র মনির হোসেন (১২) ও সুলতান আহমদের পুত্র মো: ফারুক (১৮) দুজনই শারীরিক প্রতিবন্ধি।

প্রতিবন্ধিদের বোঝা কাঁধে নিয়ে কঠোর পরিশ্রম করে কোন রকম জীবিকা নির্বাহ করে আসছেন। এমন একটি অসহায় ভূমিহীন পরিবারের একামাত্র সহায় সম্বল বসতবাড়ির জায়গাটি জবর দখল করতে দীর্ঘদিন ধরে একটি মহল অপচেষ্টা চালিয়ে আসছিল।

জানা যায়, শারীরিক প্রতিবন্ধি মনির হোসেন ও মো: ফারুক সমাজ সেবা অধিদপ্তরের সহায়তায় প্রতিবন্ধি ভাতার আওতায় আসেন। সে সুবাদে প্রতিমাসে প্রাপ্ত প্রতিবন্ধি ভাতাসমূহ সঞ্চয় করে তাদের পিতা রিক্সা চালক জলিল আহমদ জরাজীর্ণ কুড়ে ঘরটি সংস্কারের উদ্যোগ নেয়।

অভিযোগে প্রকাশ, চলতি মাসে কুড়ের ঘরটি সংস্কারের উদ্যোগ নিলে স্থানীয় কতিপয় কুচক্রীমহল ও প্রভাবশালী মহলের ইন্ধনে একই এলাকার রশিদ আহমদ ও তার পুত্র আইয়ুব আলীর নেতৃত্বে সন্ত্রাসীরা বাড়ি তৈরি কাজে বাঁধা প্রদানসহ প্রশাসনের নিকট বিভিন্ন ধরনের অভিযোগ দিয়ে নানান ধরনের হয়রানী করে আসছে।

শারীরিক প্রতিবন্ধি মনির হোসেনের পিতা অসহায় রিক্সা চালক জলিল আহমদ বলেন, তিনি একজন ভূমিহীন। মাথা গোঁজার সম্বলটি হচ্ছে তার একমাত্র জায়গা। আমাদেরকে উচ্ছেদ করে জোরপূর্বক জবর দখল করার জন্য স্থানীয় প্রভাবশালী মহলের সহায়তায় রশিদ আহমদ ও তার পুত্র আইয়ুব আলী ধারাবাহিক অপচেষ্টার অংশ হিসেবে বাঁধা প্রদান করে আসছে। এমনকি প্রশাসনের দপ্তরেও আমাদের বিরুদ্ধে মিথ্যা অভিযোগ দিয়ে এলাকা ছাড়া করার পাঁয়তারা করছে। আমাদের সাহায্য সহযোগিতা করায় নিকটতম আত্মীয় জলিল আহমদ ড্রাইভারের পুত্র জয়নাল আবেদিনকেও প্রতিপক্ষগং নানা ধরনের হুমকি-ধমকিসহ মিথ্যা অভিযোগে অভিযুক্ত করছে।

প্রতিবন্ধি ভূমিহীন দু’পরিবারের সদস্যরা তাদের একমাত্র মাথা গোঁজার সম্বলটুকু রক্ষা ও প্রভাবশালী মহলের করাল গ্রাস থেকে বাঁচার জন্য সংশ্লিষ্ট প্রশাসনের সহযোগিতা কামনা করেছেন।