শাহেদ মিজান, সিবিএন:
টেকনাফ উপজেলার সাবরাং ইউনিয়নের উপকুলে গভীর রাতে পুলিশের সাথে বন্দুকযুদ্ধে দুইজন নিহত হয়েছে। এসময় ৪ পুলিশ সদস্য আহত হয়েছে। ঘটনাস্থল থেকে অস্ত্র, বুলেট ও ইয়াবা উদ্ধার করা হয়েছে।

নিহতরা হলো- সাবরাং কচুনিয়ার আব্দুর রহিমের পুত্র নজির আহমদ প্রকাশ নজির ডাকাত (৩৯) এবং হ্নীলা জাদিমোরা নয়াপাড়ার আমির হামজার পুত্র আব্দুল আমিন (৩৭)।

পুলিশ জানায়, ২১ নভেম্বর ভোররাত সাড়ে আড়াই টারদিকে উপজেলার সাবরাং ইউনিয়নের হারিয়া খালীর ট্যুরিষ্টজোন সংলগ্ন বেড়িবাঁধ এলাকায় জিরো পয়েন্টে পুলিশ কুখ্যাত নজির ডাকাতের স্বীকারোক্তিতে তার আস্তানায় ইয়াবা বিরোধী অভিযানে গেলে তার সহযোগীরা পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলিবর্ষণ করে। পুলিশও আত্মরক্ষার্থে গুলিবর্ষণ করলে তার সহযোগীরা পালিয়ে যায়। পরে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে গুলিবিদ্ধ দুইজনকে উদ্ধার করে টেকনাফ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাদের মৃত ঘোষণ করেন।

বন্দুকযুদ্ধে পুলিশের এসআই মংছিং প্রু (৩৮) খাইরুল আলম (৩৮), কনস্টেবল রুমন (৩৪), ও আব্দুস শুক্কুর (২২) আহত হয়। তাদেও উপজেলা সদর হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হয়। ঘটনাস্থল থেকে ১০ হাজার ১৫০ পিস ইয়াবা ৪টি দেশীয় অস্ত্র, ২১ রাউন্ড গুলি উদ্ধার করে।

টেকনাফ মডেল থানার অফিসার্স ইনচার্জ প্রদীপ কুমার দাশ জানান, নিহত দুই ব্যক্তি একাধিক ডাকাতি, মাদকসহ নানা অপরাধে সম্পৃক্ত এবং এসব অপরাধের মামলার আসামী ছিল। তাদের লাশ ময়না তদন্তের জন্য মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে।