জাহেদুল ইসলাম, লোহাগাড়াঃ

চট্টগ্রামের লোহাগাড়া উপজেলার সদর ইউনিয়নে দরবেশহাট ফকির পাড়ায় (শাহপীর পাড়া) এলাকায় ১৩ বছরের এক মেয়ে পিতা কর্তৃক ১১ বার ধর্ষণের শিকার হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে । ৫ অক্টোবর সকালে ধর্ষিত ভিকটিম ওই ১৩ বছরের মেয়ে কেঁদে কেঁদে সাংবাদিকদের জানান।
এদিকে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ঘটনাটি ছড়িয়ে পড়লে এলাকায় তোলপাড় সৃষ্টি হয়।

ধর্ষিত ওই ভিকটিম বলেন, তার পিতা আব্দুল মাবুদ তাকে গত ঈদুল ফিতরের পর হতে জোর পূবক আদর করার কথা বলে ধর্ষণ করে। বিষয়টি তার দাদীকে অবহিত করলে দাদী এড়িয়ে যান। পরবর্তীতে স্বজনদের অবহিত করেন। তিনি আরো জানান, গত তিন বছর পূর্বে তার মাকে আব্দুল মাবুদ তালাক দিয়ে ২য় বিয়ে করেন। ২য় স্ত্রী প্রায় সময় বাপের বাড়িতে থাকায় তাকে ধর্ষণ করতে বাধ্য করতেন তার পিতা মাবুদ। তার বাবা একজন মাদক সেবী। প্রায় সময় মাদক সেবন করে তাকে ধর্ষণ করতে বাধ্য করত। পিতার অত্যাচারে সে ৩ অক্টোবর উপজেলার গোল মোহাম্মদ পাড়ায় নানার বাড়ি চলে যায়। ঘটনাটি কাউকে না বলার জন্য তাকে প্রায় সময় হুমকি দিয়ে আসছেন। ধর্ষিত ওই মেয়ে বর্তমানে নানার বাড়িতে অবস্থান করছেন।

ভিকটিমের নানা এয়াকুব মিয়া বলেন, ১০ বছর সংসার করার পর কুলঙ্গার মাবুদ ৩ বছর আগে তার মেয়েকে ডিভোর্স দেয়। গত ২ দিন আগে তার নাতনী তাদেরকে এসে ঘটনার বিবরণ দেন। ঘটনাটি খুবই জঘন্য। তিনি আরো বলেন, মাবুদ বুধবার লোকজন নিয়ে মেয়েকে নিয়ে যাওয়ার জন্য আসে। মেয়ে যেতে নারাজ ।

এ ব্যাপারে লোহাগাড়া থানার ডিউটি অফিসার এএসআই জেসমিন সোলতানা জানিয়েছেন, তারাও বিষয়টি লোকমুখে শুনেছেন। তবে কেউ থানায় লিখিত অভিযোগ করেননি।

এ ব্যাপারে অভিযুক্ত আবদুল মাবুদকে পাওয়া না যাওয়ায় তার বক্তব্য নেওয়া সম্ভব হয়নি।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •