‘ফেরতই একমাত্র রোহিঙ্গা সমাধান’

শাহেদ মিজান, সিবিএন:
‘রোহিঙ্গারা বাংলাদেশের মানুষের জন্য বড় বোঝা। এই বোঝা দীর্ঘস্থায়ী করার সুযোগ নেই। তাই কোনোভাবেই রোহিঙ্গাদের স্থায়ী করা যাবে না। যে কোনোভাবেই তাদের ফেরত পাঠাতে হবে। ফেরত পাঠানোই রোহিঙ্গা সমস্যার একমাত্র সমাধান। এছাড়া আর যা কিছু হবে সব অস্থায়ী সমাধান।’ বেসরকারি সংস্থাগুলোর (এনজিও) জাতীয় সংগঠন এডাব আয়োজিত এক মতবিনিময় সভায় বক্তারা একথা বলেন।
বক্তারা আরো বলেন, রোহিঙ্গাদের কারণে স্থানীয়দের দুর্ভোগ সৃষ্টি হচ্ছে। দ্রব্যমূল্য, যাতায়াতসহ বিভিন্ন ধরণের চলাচল, গাড়িভাড়া, প্রাকৃতিক পরিবেশসহ নানাভাবে স্থানীয়রা সমস্যায় পড়েছেন। এই সমস্যা লাঘবে কার্যকরী উদ্যোগ নিতে হবে। আর রোহিঙ্গারা দীর্ঘস্থায়ী হলে স্থানীয়দের সমস্যা আরো প্রকট হবে। তাই যে কোনোভাবে রোহিঙ্গাদের ফেরত পাঠাতে সরকারকে উদ্যোগ নিতে হবে।

গতকাল বুধবার রাতে শহরের আবু সেন্টারে আবু মোর্শেদ চৌধুরী খোকার সভাপতিত্বে এই মতবিনিময় সভায় অনুষ্ঠিত হয়। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন এডাব এর চেয়ারপার্সন ও সিসিডিবি’র নির্বাহী পরিচালক জয়ন্ত কুমার অধিকারী। বিশেষ বক্তা হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক, রোহিঙ্গা, শরণার্থী ও অভিবাসন বিশেষজ্ঞ সিআর আবরার। অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন এডাব এর কার্যনির্বাহী সদস্য ও ইপসার প্রধান নির্বাহী আরিফুর রহমান, সিনিয়র সাংবাদিক ফজলুল কাদের চৌধুরী, মুহাম্মদ আলী জিন্নাত, মুক্তির নির্বাহী পরিচালক বিমল কান্তি দে প্রমুখ। প্রেক্ষাপট আলোচনা শীর্ষক বক্তব্য রাখেন এডাব’র পরিচালক একেএম জসীম উদ্দীন

বক্তারা আরো বলেন, রোহিঙ্গাদের রক্ষণাবেক্ষণে সমন্বয়হীনতা রয়েছে। আশ্রয় নেয়া রোহিঙ্গাদের সহায়তায় কাজ করা সংস্থারগুলোর মধ্যে সমন্বয় করা হচ্ছে না। কাজ করতে গিয়ে তারা নিজেদের মধ্যে প্রতিযোগিতা করছে। এতে মুল কাজের ব্যাঘাত ঘটছে। এই সমস্যা উত্তরণে সরকারকে উদ্যোগ নিতে হবে।

বক্তারা বলেন, বাংলাদেশে অবস্থান করা রোহিঙ্গাদের অনুপ্রবেশকারী না শরণার্থী বলবো তাও এখনো নির্ধারিত হয়নি। সরকার বলছে অনুপ্রবেশকারী আর আন্তর্জাতিক সংস্থাগুলো বলছে শরণার্থী। তবে এর নীতিগত ব্যাখ্যা না থাকায় তা নিয়ে দ্বিধা-দ্বন্দ্ব রয়েছে। এই বিষয়টি স্পষ্ট করার জন্য সরকারকে আহ্বান জানাচ্ছি।

অন্যদিকে আগত রোহিঙ্গাদের মধ্যে এইডস, যক্ষাসহ নানা রোগব্যাধী বিরাজ করছে। এই রোগব্যাধী আরো বাড়ছে। তাদের এই সংক্রামক এই রোগব্যাধী এভাবে বেড়ে গেলে তা স্থানীয় লোকজনের মাঝেও ছড়িয়ে পড়ার আশঙ্কা অত্যন্ত প্রকট। তাই রোহিঙ্গাদের রোগব্যাধী নিরোধের অত্যন্ত জোর দিতে হবে।

 

সর্বশেষ সংবাদ

সন্ত্রাস, চাঁদাবাজ ও জবর-দখলমুক্ত নিরাপদ পেকুয়া গড়তে চান আবুল কাশেম

ভাসানচরে পুনর্বাসনকে স্বাগত জানালো ইউএনএইচসিআর

নিরাপদ ও পরিচ্ছন্ন শহর গড়তে বই মার্কাকে বিজয়ী করুন: রশিদ মিয়া

শেখ হাসিনার মনোনিত প্রার্থী জুয়েলকে ভোট দিয়ে জয়যুক্ত করুন : মেয়র মুজিবুর রহমান

বঙ্গবন্ধু প্রেমিকেরা কোনদিন নৌকার সাথে বেঈমানী করতে পারেনা

কক্সবাজার শহরে ইভটিজিংয়ের প্রতিবাদ করায় সংবাদকর্মীর উপর হামলা

উপজেলা পর্যায়ে শ্রেষ্ঠ প্রধান শিক্ষক কোরক বিদ্যাপীঠের প্রধান শিক্ষক নুরুল আখের

চকরিয়া-পেকুয়াকে নিরক্ষতার অভিশাপমুক্ত করতে হবে : জাফর আলম এমপি

উপজেলা পর্যায়ে আবারও শ্রেষ্ঠ শিক্ষক অধ্যাপক পদ্মলোচন বড়ুয়া

কক্সবাজার মার্কেট মালিক ফোরাম গঠিত

লাকড়ি চুরির আপবাদে দুই শিশুকে গাছে বেঁধে নির্যাতন

কক্সবাজারের ৬ টি উপজেলায় রোববার সাধারণ ছুটি ঘোষণা

নবীন আইনজীবীদের রাষ্ট্রীয়ভাবে ন্যূনতম ৫ বছর ভাতা দেয়া উচিৎ : ব্যারিস্টার খোকন

বিএনপি নেতা ইকবাল বদরীর মৃত‌্যুতে সালাহউদ্দিন আহমদ ও এড. হাসিনা আহমদের শোক

‘জনতার মাঝেই সেলিম আকবর’

চকরিয়ার নুরুল কবির কন্ট্রাক্টরের ইন্তেকাল, জানাযা সম্পন্ন

‘দেশের একডজন নদী থেকে ইলিশের আবাসস্থল হারিয়ে গেছে’

ইকবাল বদরীর মৃত্যুতে শাহজাহান চৌধুরীর শোক

ইকবাল বদরী’র মৃত্যুতে বিএনপি’র মহাসচিব মির্জা ফখরুলের শোক

ভাইস-চেয়ারম্যান প্রার্থী আবদুর রহমানের দিনভর প্রচারণা