স্থানীয়দের চাকুরী দিতে এনজিওদের অনাগ্রহ

আব্দুল আলীম নোবেল, কক্সবাজার:
সম্প্রতি কক্সবাজারে ১০ লক্ষাধিক রোহিঙ্গা অবস্থান করছে। বিশাল এই রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠির জীবন মান নিয়ে কাজ করছে শতাধিক দেশিবিদেশী এনজিও। এইসব এনজিওদের বিভিন্ন পদে নিয়োগ পক্রিয়া বেড়েছে। তবে এই নিয়োগের শুরু থেকে চরম অনিয়ম চলছে বলে এমন অভিযোগ তুলেছে চাকুরী প্রার্থীরা। বিষয়টি নিয়ে বেশ কিছু দিন থেকে জেলা জুড়ে আলোচনা সমালোচনার ঝড় ওঠেছে।

কক্সবাজার শহরের বাসিন্দা এনজিওতে চাকুরী প্রার্থী আব্দুল কাদের জানান, গত কয়েক দিন থেকে স্থানীয় দৈনিকে দেশিবিদেশী এনজিওদের নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি ছেড়েছে। অনেকে এইসব বিজ্ঞপ্তি দেখে চাকুরীর আবেদন করা হলেও বেশির ক্ষেত্রে সবকিছু যোগ্যতা থাকার পরেও চাকুরী হচ্ছে না স্থানীয়দের। নানা কায়দা করে ওই প্রতিষ্ঠানের সংশ্লিষ্টরা তাদের মামা খালোদের চাকুরীতে ঢুকানো হচ্ছে। বাদ দেয়া হচ্ছে স্থানীয়দের। অতচ রোহিঙ্গার কারণে চরমভাবে স্থানীয়রা ক্ষগ্রিস্থ হচ্ছে।

উখিয়া পালংখালী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান গফুর উদ্দিন চৌধুরী জানান, রোহিঙ্গারা এই দেশে আশ্রতি হওয়ায় সবার আগে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে স্থানীয় জনগনই। । এমনকি অনেকের কৃষি জমি বসত বাড়িসহ নানাভাবে এলাকাবাসী ক্ষতির শিকার হয়েছে। তাহলে কেন এনজিওদের চাকুরীর নিয়োগে স্থানীয় শিক্ষিত যুবকদের কাজ করার সুযোগ দেয়া হবে না। স্থানীয়দের দাবী এইসব এনজিওতে অনন্ত শতকরা ৬০ ভাগ অগ্রধিকার ভিত্তিতে চাকুরীতে নিয়োগ দিতে হবে। এই সব বিষয়ে বেশ কয়েকজন এনজিও কর্মকর্তার সাথে কথা বললে তারা বলেন যোগ্যতা ও অভিজ্ঞতার ভিত্তিতে চাকুরী প্রার্থীদের চাকুরীতে নিয়োগ দেয়া হচ্ছে। উপরোক্ত অভিযোগ অস্বীকার করেন তারা। গত মঙ্গলবার বিষয়টি নিয়ে স্থানীয় গণমাধ্যম কর্মীরা সরকারের এক উচ্চ পর্যায়ের মন্ত্রীকে প্রশ্ন করলে তিনি জানান,সবার আগে স্থানীয়দের এইসব চাকুরীতে যোগ্যতার বলে নিয়োগ দিতে হবে। এইনিয়ে কক্সবাজারে গত কয়েক থেকে চাকুরী প্রার্থীও সাধারণ মানুষের কাছে বিষয়টি আলোচনায় আসছে।

কক্সাবাজার সোসাইটির সভাপতি কমরেড গিয়াস উদ্দিন জানান, রোহিঙ্গাদের কারণে ক্ষতিগ্রস্থ স্থানীয়রা। এনজিওতে সবার আগে তাদের নিয়োগ দিতে হবে। কারণ তারা রোহিঙ্গাদের ভাষা বুঝে। এতে তাদের সাথে কাজ করতে সুবিধা হবে। ক্সবাজারের লোক না হলে রোহিঙ্গাদের ভাষা বুঝা অনেক কঠিন হবে। এই বিষয়টি মাথায় রেখে হলেও তাদেরকে এনজিওতে নিয়োগ দিতে হবে। কোষ্টের প্রোগ্রাম ম্যানেজার জাহঙ্গীর আলম জানান, এইসব কথা ভিত্তিহীন যোগ্যতার বিভিত্তে সবাইকে এনজিওতে নিয়োগ দেয়া হচ্ছে। এখানে কোন সঠামির আশ্রয় নেয়া হচ্ছে না। তবে সবার আগে যে কোন এনজিও অভিজ্ঞতাকে একটু প্রাধান্য দিয়ে থাকে। এছাড়া যে কোন প্রতিষ্ঠান সৎ, স্মার্ট কর্মঠ ছেলে মেয়েদেরকে চাকুরীতে সুযোগ দিয়ে থাকে।

cbn
কক্সবাজার নিউজ সিবিএন’এ প্রকাশিত কোনও সংবাদ, কলাম, তথ্য, ছবি, পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ।

সর্বশেষ সংবাদ

মাতারবাড়িতে চতুর্থ শ্রেণীর মাদ্রাসা ছাত্র খুন : শিক্ষকসহ দুজন গ্রেপ্তার

কক্সবাজার আইডিয়াল স্কুলে নার্সারী থেকে ৮ম শ্রেণী পর্যন্ত ভর্তি চলছে

নৌকায় ভোট দিন, আমি উন্নয়ন দিব -মালুমঘাটে জাফর

সারাদেশে ১০১৬ প্লাটুন বিজিবি মোতায়েন

জামায়াতের ২৫ প্রার্থীর প্রার্থিতা বাতিলের আবেদন তিনদিনের মধ্যে নিষ্পত্তির নির্দেশ

রিট খারিজ, নির্বাচনে অংশ নিতে পারছেন না খালেদা জিয়া

বিজয়ের ছুটিতে পর্যটকদের উপচেপড়া ভিড় কক্সবাজারে

যা আছে বিএনপির ইশতেহারে

নিরাপত্তাহীনতায় তিনদিন ধরে নির্বাচনী প্রচারণায় যেতে পারছেন না হাসিনা আহমদ

পার্বত্য চট্টগ্রামের প্রতিটি ভোট কেন্দ্রে সেনা মোতায়েন করা হবে-সিইসি

সরল নির্বাচনের কঠিন সমীকরণ

ধানের শীষের পোস্টার টাঙ্গানোর সময় অতর্কিত হামলার অভিযোগ

আওয়ামীলীগের পূর্নাঙ্গ নির্বাচনী ইশতেহার

নির্বাচনী ইশতেহারে আ’লীগের ২১ অঙ্গীকার

নির্বাচনী ঘটনায় ভূট্টো ও মাবুদ চেয়ারম্যান সহ ৮০ জনকে আসামী করে দু’টি মামলা

ঈদগাঁও থেকে ২ ব্যক্তি অপহরণ

আলমগীর ফরিদের প্রার্থীতা ও ধানের শীষ পেতে আর কোন বাঁধা নেই

চকরিয়া-পেকুয়ার জনগণ মৌসুমী প্রার্থীকে গ্রহণ করেনি-জাফর আলম

সীতাকুণ্ড থেকে পালিয়ে আসা প্রেমিক যুগল ঈদগাঁওতে ধৃত

আইন-শৃঙ্খলা সঠিক রাখতে আইজিপিকে সিইসির নির্দেশ