সিবিএন:
উখিয়ার ইনানী সৈকতের পাটুয়ারটেক এলাকায় রোহিঙ্গাবোঝাই ট্রলারডুবির ঘটনায় আরও ৬ মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। শুক্রবার ভোরে জোয়ারের পানিতে মরদেহগুলাে ভেসে আসে। এ নিয়ে এ ঘটনায় মোট ২০ জনের মরদেহ উদ্ধার করা হলো।

বেলা সাড়ে ১১টায় ইনানী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে জানাজা শেষে স্থানীয় কবরস্থানে মরদেহগুলো দাফন করা হয়।

জালিয়া পালংয়ের ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান নুরুল আমিন চৌধুরী বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, ভোরে জোয়ারের পানিতে মরদেহগুলো ভেসে আসলে উদ্ধার করা হয়। এরমধ্যে ২ শিশু ও ৪ নারীর মরদেহ রয়েছে। মরদেহ আরও আসতে পারে।

এর আগে  ইনানী সৈকতের পাটুয়ারটেক এলাকায় রোহিঙ্গাবোঝাই ট্রলার ডুবিতে ১৪ জনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়। জীবিত উদ্ধার করা হয় ২৬ জনকে। আরও ৬০ জন নিখোঁজ রয়েছে বলে দাবি করেন উদ্ধার হওয়া লালু মাঝি (৪৮) নামে এক রোহিঙ্গা।

তিনি জানান, বৃহস্পতিবার বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে প্রচণ্ড বাতাসের কারণে রোহিঙ্গাবোঝাই ট্রলারটি পাথরে ধাক্কা খেয়ে ডুবে যায়।

উল্লেখ্য, মিয়ানমার সেনাবাহিনীর নির্যাতনে পালিয়ে আসা রোহিঙ্গারা সাগর পথ পাড়ি দিয়ে বাংলাদেশে অনুপ্রবেশের চেষ্টাকালে নৌকা ডুবির ঘটনা ঘটছে। রোহিঙ্গা বহনকারী নৌকাডুবিতে টেকনাফ ও আশপাশ এলাকা থেকে এ পর্যন্ত অন্তত দেড় শতাধিক রোহিঙ্গা নারী-পুরুষ ও শিশুর মৃত্যু হয়েছে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •