মিয়ানমারের ১৩ কার্গো ট্রলার ৪৪ রোহিঙ্গা জেলেসহ টেকনাফ স্থলবন্দরে আটকা

হাফেজ মুহাম্মদ কাশেম, টেকনাফ :

টেকনাফ-মংডু সীমান্ত বাণিজ্যের আওতায় পণ্য নিয়ে এসে মিয়ানমারের ১৩টি কার্গো ট্রলার এবং ৪৪ জন রোহিঙ্গা মাঝি-মাল্লা টেকনাফ স্থল বন্দরে আটকা পড়েছেন। মিয়ানমারের আরাকান রাজ্যে ২৪ আগস্ট দিবাগত রাতে সহিংস ঘটনার প্রেক্ষিতে এরা ভয়ে গত এক মাসেরও অধিক কাল ধরে স্বদেশে ফিরতে পারছেন না বলে জানা গেছে। মিয়ানমার নাগরিক ৪৪ জনের মধ্যে ৪৩ জনই মুসলমান এবং ১ জন অমুসলিম হিন্দু। এরা সকলের বাড়ি মিয়ানমারের মংডু টাউনশীপের নোয়াপাড়া, উকিলপাড়া, নাপিতের ডেইল, সুধাপাড়া, খাঁরিপাড়া, ফয়েজীপাড়া, মনিপাড়া এবং ২ সহোদর বাড়ি বলিবাজার গ্রামে।

২৮ সেপ্টেম্বর সরেজমিন টেকনাফ স্থল বন্দরে গিয়ে জানা গেছে এ তথ্য। কথা হয় আটকে পড়াদের সাথে। এরা খায়-দায়, বন্দর এলাকায় ঘুরে বেড়ায়, আর তাঁদের কার্গো ট্রলারে ঘুমায়। সরেজমিন পরিদর্শনকালে ৪০ জনকে উপস্থিত পাওয়া গেছে। এরা হলেন জামাল হোছন মাঝি (৬০), আরেছ আহমদ (২৩), রফিক আলম (৩০), ইয়ামিন (৩২), গুরা মিয়া (৩৫), ফায়সাল (২০), আবদুল হাকিম (৩৫), হোছন আহমদ (৪০), হোছন আলী (২৭), জিয়াউর রহমান (৩৫), আহমদ হোছন (৩৬), মোঃ জোহার (৪০), হেমন্ত (৪৫), জুবাইর (৩৫), ইলিয়াছ (২৬), পুতু (৩০), জামাল হোছন (২৮), নুর হোছন (২৫), আনিস (২০), মোঃ রফিক (২৫), কামাল হোছন (২৬), রফিক আলম (৪০), নুর হাকিম (২২), কুরবান আলী (২৭), আবদুল হামিদ (৩০), মোঃ জুবাইর (২৬), পুতুইয়া (২৬), নুরুল আলম (২২), মোঃ নুর (৩০), শফিকুল্লাহ (২৫), রাহমতুল্লাহ (৩৫), আবদুল হামিদ (৪০), সালেহ আহমদ (২২), রশিদ আহমদ (৪৫), মোঃ সালাম (৫০), মোঃ হারুন (২৭), রাহমতুল্লাহ (৩০), জামাল হোছন (১৮), মোস্তাক আহমদ (৩৫), জিয়াবুল হক (২৫), রাহমত আলী (২২)। অপর ৩ জন গোপনে এবং বিভিন্ন কৌশল অবলম্বন করে মিয়ানমারে চলে গিয়েছেন বলে সরেজমিন স্থল বন্দরে গিয়ে আটকে পড়াদের সাথে আলাপ করে জানা গেছে। উক্ত ৩ জনের নাম-ঠিকানা এবং উপস্থিত পাওয়া যায়নি। আটকে পড়া একমাত্র অমুসলিম হিন্দু রোহিঙ্গা জিতেন্দ্রের পুত্র হেমন্ত (৪৫) গত ২২ সেপ্টেম্বর প্রকাশ্যে মাদক সেবনের দায়ে আটক হয়ে বর্তমানে জেলহাজতে রয়েছেন।

আটকে পড়া মিয়ানমার নাগরিক মংডু টাউনশীপের নোয়াপাড়া গ্রামের বাসিন্দা মৃত আমির হামজার পুত্র জামাল হোছন মাঝি (৬০) বলেন ‘আমরা ২৪ আগস্ট সীমান্ত বাণিজ্যের আওতায় মিয়ানমারের মংডু থেকে ১৩টি কার্গো ট্রলারে মালামাল বোঝাই করে ৪৪ জন মাঝি-মাল্লা টেকনাফ স্থল বন্দরে আসি। মালামাল খালাস করে ২৫ আগস্ট মংডুতে ফিরে যাওয়ার কথা ছিল। বাণিজ্যের মালামালও যথাসময়ে খালাস হয়েছিল। কিন্ত রাতে সহিংস ঘটনার কারণে ভয়ে দেশে ফিরে যাইনি। আমরা ঈদ উদযাপন করেছি এখানে। যাঁদের কাছে সীমান্ত বাণিজ্যের মালামাল এনেছিলাম, তাঁরা আমাদের রসদপাতি দিচ্ছেন। বন্দর কতৃপক্ষ, কাস্টমস এবং টেকনাফের ব্যবসায়ীগণ আমাদের যথেষ্ট দেখাশুনা করছেন। খোঁজখবর রাখছেন। মোবাইল ফোনে পরিবারের সাথে আমাদের নিয়মিত যোগাযোগ রয়েছে। কয়েক জনের পরিবার-পরিজন পালিয়ে বাংলাদেশে চলে এসেছে’।

তিনি আরও বলেন ‘আমরা সাধারণ মাঝি-মাল্লা। আমরা যাঁদের মালামাল নিয়ে বাংলাদেশে এসেছিলাম তাঁরা মংডু টাউনশীপের বড় বড় ব্যবসায়ী। তম্মধ্যে মুসলমান এবং রাখাইন উভয়ে রয়েছেন। তাঁরা মংডু এলাকার ধনী লোক। তাঁরা আমাদেরকে মোবাইল ফোনে জানিয়েছেন বিষয়টি লিখিতভাবে উর্ধতন কতৃপক্ষকে জানানো হয়েছে। কিন্ত এখনও রিপোর্ট আসেনি। রিপোর্ট আসলে এবং নিরাপত্তার নিশ্চয়তা পেলে স্বদেশে ফিরে যাব’।

টেকনাফ স্থল বন্দরের জিএম জসিম উদ্দিন বলেন ‘গত বছরের অক্টোবর থেকে টেকনাফ স্থল বন্দরের ইমিগ্রিশন শাখা বন্দ রয়েছে। মিয়ানমারের ১৩টি কার্গো ট্রলার এবং ৪৪ জন রোহিঙ্গা মাঝি-মাল্লা ২৪ আগস্ট থেকে আটকে পড়া নিশ্চিত করে বলেন ‘বিষয়টি উর্ধতন কতৃপক্ষ এবং স্থানীয় প্রশাসনকে অবহিত করা হয়েছে’।

কক্সবাজার নিউজ সিবিএন’এ প্রকাশিত কোনও সংবাদ, কলাম, তথ্য, ছবি, পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ।

সর্বশেষ সংবাদ

জাতিসংঘের হস্তক্ষেপের কোনও অধিকার নেই: মিয়ানমার সেনাপ্রধান

বৃহস্পতিবার ঢাকায় বিএনপির সমাবেশ

দাঁড়িয়ে প্রস্রাব করা কি শুধু ইসলামেই নিষেধ?

খুটাখালীর ব্যবসায়ী নুরুল ইসলামের ইন্তেকাল

যেভাবে ব্রাশ করলে দাঁতের ক্ষতি হয়

আমি সৌভাগ্যবান যে তোমাকে পেয়েছি : বিবাহবার্ষিকীতে মুশফিক

মালদ্বীপের বিতর্কিত নির্বাচনে বিরোধী নেতার জয়

ইমরান খানের স্পর্ধা আর মেধায় বিস্মিত মোদি

ফেসবুক লিডারশিপ প্রোগ্রামে নির্বাচিত হলেন বাংলাদেশের রাজীব আহমেদ

কঠিন প্রতিশোধের হুমকি ইরানের

তিন জেলায় ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত ৩

জাতীয় ঐক্য নয়, জগাখিচুড়ি ঐক্য : কক্সবাজারে কাদের

যুক্তফ্রন্টের নামে দুর্নীতিবাজরা এক হয়েছে

পেকুয়ায় স্কুল ছাত্রীর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার

আলীকদমে সংরক্ষিত বনাঞ্চল থেকে পাথর উত্তোলনের দায়ে ১১ আটক

সাংবাদিক আহমদ গিয়াসের শ্বশুর মাওলানা সিরাজুল্লাহ আর নেই

এসকে সিনহাকে চ্যালেঞ্জ বিচারকের

ম্যাচ সেরা মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ

ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন বাতিল চান ড. কামাল

দেশের হয়ে প্রথম ২৫০ মাশরাফির