দেবী দু্র্গাকে ‘যৌনকর্মী’ বলে বিতর্কের মুখে দিল্লি বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক

প্রকাশ: ২৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৭ ০৬:২৩

পড়া যাবে: [rt_reading_time] মিনিটে


সহকারী অধ্যাপক কেদার কুমার মণ্ডল। ছবি: অধ্যাপকের ফেসবুক থেকে নেওয়া।
cbn  

অানন্দ বাজার :

দেবী দুর্গা সম্পর্কে কুরুচিকর মন্তব্য করে প্রবল বিতর্কের মুখে দিল্লি বিশ্ববিদ্যালয়ের দয়াল সিংহ কলেজের সহকারী অধ্যাপক কেদার কুমার মণ্ডল।
গত ২২ সেপ্টেম্বর তিনি ফেসবুকে দেবী দুর্গাকে ‘পৌরাণিক শাস্ত্রের যৌনকর্মী’ বলে মন্তব্য করেন। তাঁর লেখা পোস্টটি ভাইরাল হওয়ার পরই বিভিন্ন মহল থেকে তীব্র প্রতিক্রিয়া আসতে শুরু করে। অখিল ভারতীয় বিদ্যার্থী পরিষদ (এবিভিপি) এবং ন্যাশনাল স্টুডেন্টস’ ইউনিয়ন অব ইন্ডিয়া (এনএসইউআই) অধ্যাপক মণ্ডলের এই কুরুচিকর মন্তব্যের বিরোধিতা করে দিল্লি বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের কাছে তাঁর পদত্যাগের দাবি করেছেন। অন্য দিকে দিল্লি বিশ্ববিদ্যালয়েক শিক্ষক সংগঠন ন্যাশনাল ডেমোক্র্যাটিক টিচার ফ্রন্ট (এনডিটিএফ) ওই অধ্যাপকের বিরুদ্ধে পুলিশে অভিযোগ জানিয়ে একটি মামলা দায়ের করে। এনডিটিএফ-এর প্রধান রাজীব রায় বলেন, “এই ধরনের মন্তব্য অত্যন্ত নিন্দনীয়। বাক্‌স্বাধীনতা থাকলেই যা ইচ্ছা বলা যায় না।”
সমাজের বিভিন্ন মহল তো বটেই, সোশ্যাল মিডিয়াতেও অধ্যাপকের বিরুদ্ধে মামলা করার দাবি জানিয়েছেন অনেকে। তাঁর এই মন্তব্য নিয়ে সমালোচনার ঝড় বয়ে যাচ্ছে দেখেই পোস্টটি মুছে দেন অধ্যাপক মণ্ডল। তবে কেন তিনি এ ধরনের মন্তব্য করলেন সে বিষয়টি অবশ্য স্পষ্ট নয়।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •