বার্তা পরিবেশক:

আগামী একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে কক্সবাজার-২ (মহেশখালী-কুতুবদিয়া) সংসদীয় আসনে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের অন্যতম মনোনয়ন প্রত্যাশী ঢাকা বিশ^বিদ্যালয়ের সবুজ চত্বরে বেড়ে উঠা ঢাকা বিশ^বিদ্যালয়ের এক সময়ের তুখোড় মেধাবী ছাত্রনেতা বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় কমিটির সাবেক সহ-সভাপতি ওসমান গণি মহেশখালীর প্রত্যন্ত অঞ্চলের পাশাপাশি কুতুবদিয়াতেও শুরু করেছেন ব্যাপক গণ সংযোগ। গত ২১ সেপ্টেম্বর বৃহস্পতিবার ও ২২ সেপ্টেম্বর শুক্রবার ২ দিন একটানা গণ সংযোগের ব্যস্ত সময় কাটান দ্বীপ উপজেলা কুতুবদিয়াতে। এই সময় তৃণমূল আওয়ামীলীগ নেতাকর্মীদের মিলন মেলায় পরিনত হয়।

গত বৃহস্পতিবার কুতুবদিয়া দরবারঘাট হয়ে শুরু করেন তৃণমূল নেতকর্মী ও আমজনতার সাথে কুশল বিনিময়। লেমশীখালী ইউনিয়নের চৌমুহনীতে গণসংযোগ শেষে কুতুব শরীফ দরবারে গিয়ে শাহ্ আব্দুল মালেক আল কুতুবী (রাঃ) এর মাজার জিয়ারত করেন। সেখানে সৌজন্য সাক্ষাতে মিলিত হন কুতুব শরীফ দরবারের শাহ্জাদা সৈয়দুল মিল্লাতের সাথে। সেখান থেকে কুতুব শরীফ দরবার স্টেশনে শুরু করেন সাধারণ জনতার সাথে কুশল বিনিময়। সেখান থেকে দক্ষিণ ধুরং ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের নেতৃবৃন্দ এবং স্থানীয় জনতার সাথে মত বিনিময় করেন। সেখান থেকে ধুরং বাজারের গণ সংযোগ করেন পরে উত্তর ধুরং ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ নেতৃবৃন্দ ও স্থানীয় জন সাধারণের সাথে মত বিনিময় করেন। সেখান থেকে বড়ঘোপ বাজারে গণ সংযোগ শেষে ১ম দিনের কর্মসূচি সমাপ্ত করেন।

গত শুক্রবার ২য় দিনের মত কুতুবদিয়া অবস্থান করে আলী আকবর ডেইল ইউনিয়নের ঘাট স্টেশনে ব্যাপক গণ সংযোগ শেষে একই ইউনিয়নের তাবলর চরে গণ সংযোগ করেন। গণ সংযোগ শেষে তাবলর চর স্থানীয় আওয়ামীলীগ নেতৃবৃন্দ এবং জন সাধারণের সাথে মত বিনিময় সভায় মিলিত হন। পরবর্তীতে আলী আকবর ডেইল ইউনিয়নের শান্তি বাজার এলাকায় গণ সংযোগ করেন। সেখান থেকে কুতুবদিয়া উপজেলা মহিলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ও কুতুবদিয়া উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান সৈয়দা মেরুন্নেছার সাথে মত বিনিময় শেষে কুতুবদিয়া উপজেলা জামে মসজিদে জুমার নামাজ আদায় শেষে মুসল্লিদের সাথে মত বিনিময় সভায় মিলিত হন। কুতুবদিয়ার প্রত্যন্ত অঞ্চলগুলোতে গণ সংযোগে তিনি সরকারের উন্নয়ন কর্মকান্ড ব্যাপক ভাবে তুলে ধরেন এবং সরকার অত্যন্ত আন্তরিক ও সাহসীকতার সাথে রোহিঙ্গা শরণার্থী বিষয়ে ভূমিকা পালনকারী মাননীয় প্রধান মন্ত্রী শেখ হাসিনার জন্য দোয়া প্রার্থনা করেন। কুতুবদিয়ায় ২দিন ব্যাপি এ গণ সংযোগে মহেশখালীর আম জনতার ভালাবাসার ঢেউ যেন পৌছে গেছে কুতুবদিয়াতেও।

কুতুবদিয়ার প্রত্যন্ত অঞ্চলের যেখানে যাচ্ছেন সেখানেই সিক্ত হচ্ছেন আমজনতার ভালবাসায়। তৃণমূল নেতাকর্মীরাও প্রত্যন্ত গ্রামগুলোতে তাদের প্রিয় নেতাকে পেয়ে উচ্ছসিত। দীর্ঘদিন ধরে ছাত্র রাজনীতির সুবাদে এমনিতেই কুতুবদিয়ার আওয়ামীলীগ পরিবার গুলোর সাথে রয়েছে তার অনেক পুরনো ঘনিষ্টতা। কুতুবদিয়াতে তার জনপ্রিয়তার পিছনে সেটা ও অন্যতম কারণ বলে রাজনৈতিক বিশ্লেষকদের অভিমত। মহেশখালীর প্রত্যন্ত অঞ্চলে পরিচিত ও জনপ্রিয় নামটি এখন মাতাতে শুরু করেছে কুতুবদিয়ার অলি-গলি ও প্রান্তিক জনগোষ্ঠির হৃদয়কে। ভৌগোলিক কারণে ধলঘাটা কুতুবদিয়ার শত বছরের সাগর পথে যোগাযোগটা যেন আরও বেশী কাছে ও নিবিড় করে দিচ্ছে কুতুবদিয়াবাসীকে এমনই অভিমত কুতুবদিয়া তৃণমূল আওয়ামীলীগের এক নেতার।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •