cbn  

 

এম.জিয়াবুল হক,চকরিয়া

চকরিয়া উপজেলার হারবাং ইউনিয়নে অষ্ঠম শ্রেনীতে পড়ুয়া এক ছাত্রীকে উত্যক্ত করার জেরে বিচার চাইতে গিয়ে উল্টো বখাটে সন্ত্রাসীর হামলার শিকার হয়েছে আক্রান্ত ছাত্রীর পরিবার। ঘটনার সময় হামলকারীরা স্কুল ছাত্রীর বাবা ও ভাইকে বেদড়ক পিটিয়ে জখম করেছে।

এ ঘটনায় আক্রান্ত ছাত্রীটির মা হারবাং ইউনিয়নের ৮নম্বর ওয়ার্ডের সাবানঘাটা এলাকার আকতার হোসেনের স্ত্রী খাইরুনেচ্ছা বাদি হয়ে গত ১৯ সেপ্টেম্বর চকরিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কাছে লিখিত অভিযোগ করেছেন। অভিযোগটিতে আসামি করা হয়েছে হারবাং ইউনিয়নের ৮নম্বর ওয়ার্ডের করমমুহুরীপাড়া গ্রামের ছৈয়দ আলমের ছেলে বখাটে রায়হান, তার সহযোগি একই এলাকার শাহ আলমের ছেলে খোকন ও আবদুল মজিদের ছেলে মনজুর আলম।

চকরিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কাছে দায়ের করা লিখিত অভিযোগে বাদি খাইরুনেচ্ছা জানান, তার মেয়ে স্থানীয় মৌলভী ছাইদুল হক বিদ্যালয়ে অষ্ঠম শ্রেনীতে লেখাপড়া করছেন। স্কুলে যাওয়া-আসার পথে অভিযুক্ত বখাটে রায়হান পথরোধ করে তাকে নানাভাবে যৌন হয়রানি করতো এবং কু-প্রস্তাব দিত। ঘটনাটি জানতে পেরে অভিযুক্ত বখাটে রায়হানের বিরুদ্ধে বিচার দেন তাঁর বাবা ও চাচাকে।

বাদি জানান, বিচার দেয়ায় ক্ষুদ্ধ হয়ে গত ১৭ সেপ্টেম্বর বিকালে অভিযুক্ত বখাটে রায়হান ও তাঁর সহযোগিরা দলবদ্ধ হয়ে ছুটি শেষে বাড়ি ফেরার পথে স্কুলের মাঠে এসে শিক্ষক ও অন্য শিক্ষার্থীদের সামনে টানা-হেচঁড়া করে তার মেয়েকে অপহরণের চেষ্ঠা করে। ওইসময় ঘটনার খবর পেয়ে মেয়েকে উদ্ধারে তাঁর বাবা আকতার হোসেন ও ভাই নুরুচ্ছবি ঘটনাস্থলে গেলে অভিযুক্তরা তাদের উপর হামলা চালিয়ে বেধড়ক মারধর করে। ঘটনাটি ইতোমধ্যে স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ও স্কুলের শিক্ষক এবং স্থানীয় সমাজপতিদেরকে জানানো হয়েছে।

বাদি খাইরুনেচ্ছা অভিযোগ করেছেন, ঘটনার পর থেকে অভিযুক্ত বখাটে রায়হান ও তাঁর সহযোগিরা নানাভাবে হুমকি দিচ্ছে তাঁর মেয়েকে অপহরণ করে হত্যার পর লাশ গুম করে ফেলবে। এ অবস্থার কারনে বর্তমানে ছাত্রীটি বিদ্যালয়ে যেতে পারছেনা। পাশাপাশি হামলার ভয়ে তাঁর পরিবার সদস্যরা চরম আতঙ্কে রয়েছে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •