অনলাইন ডেস্ক : আল্লাহর বিচার শুরু হয়েছে। আগামী সাত দিনের মধ্যে মিয়ানমারে সবকিছু ধংস হয়ে যাবে ! এমন ভবিষ্যৎবাণী দিলেন বাংলাদেশের বহুল সমালোচিত ভন্ডপীর দেওয়ানবাগী।

শুক্রবার, জুমা নামাজ শেষে ভক্তদের উদ্যেশ্যে তিনি এই আশ্বাস দেন।

‘আগামী সাত দিনের মধ্যে কীভাবে মিয়ানমার ধ্বংস হবে?’ এমন প্রশ্নের উত্তরে দেওয়ানবাগী ইন্ডিপেন্ডেন্ট বাংলাকে বলেন, ‘আলামত শুরু হয়ে গেছে। অপেক্ষা করেন।’

এদিকে, দেওয়ানবাগীর এসব অযৌক্তিক মন্তব্যের কারণে সব মহলে সমালোচনার ঝড় উঠেছে।

‘দেওয়ানবাগীর এসব মন্তব্য ইসলামের সাথে মস্করা।’ এমন মন্তব্য করেছেন অনেকে।

‘উল্টাপাল্টা কথাবার্তার কারণে দেওয়ানবাগী নিজেই তামাশার পাত্র হচ্ছেন’। এমন মন্তব্য আসছে শিক্ষিত মহল থেকে।

এ ব্যাপারে দেওয়ানবাগীর শিষ্য তাপস শেখের কাছে জানতে চাইলে তিনি জানান, ‘আমাগো হুজুরের সাথে আল্লাহ তায়ালা’র কথা হয়। এটা মারফতি জিনিস। আপ্নে বুঝবেন না।’

“লোকে যে তার আজগুবি কথাবার্তা শুনে হাসাহাসি করছে, খেয়াল করেছেন?” এমন প্রশ্নের উত্তরে তাপস বলেন, “আল্লাহপাক বলেছেন, এমন ভাবে এবাদত করো, লোকে যেন পাগল বলে।- আলহাদীস। মানুষের হাসাহাসিই প্রমাণ করে বাবা কামালিয়াত পেয়ে গেছেন।”

“আগামী সাত দিনের মধ্যে মিয়ানমারের কিছুই যদি না হয়, তখন হুজুরের মর্যাদা কোথায় গিয়ে ঠেকবে ভেবে দেখেছেন”, এ জিজ্ঞাসার বিপরীতে তাপসের বক্তব্য, আগামী সাত দিনের মধ্যে মিয়ানমার ধ্বংস হয়ে যাবে, লেইক্ষা রাইখেন।”

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •