ডেস্ক নিউজ:

রোহিঙ্গা সঙ্কটের মধ্যে কক্সবাজারে গ্রেপ্তার মিয়ানমারের দুই আলোকচিত্র সাংবাদিককে কারাগারে পাঠিয়েছে আদালত। পরিচয় গোপন ও মিথ্যা তথ্য দেওয়ার অভিযোগে পুলিশ বুধবার উখিয়া সীমান্ত এলাকা থেকে গ্রেপ্তার করে।

মিনজাইয়ার উ ও হকুন লাট নামে মিয়ানমারের দুই নাগরিক জার্মানির হামবুর্গভিত্তিক ‘জিও’ সাময়িকীতে কাজ করেন বলে জানিয়েছেন।

কক্সবাজারের এএসপি আফরুজুল হক টুটুল বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, “গ্রেপ্তারের পরদিন (বৃহস্পতিবার) তাদের কক্সবাজার জ্যেষ্ঠ বিচারিক হাকিম রাজীব কুমার দেবের আদালতে হাজির করা হয়। আদালত আসামিদের করা জামিন আবেদন নাকচ করে জেল হাজতে পাঠানোর আদেশ দেন।”

তিনি বলেন, উখিয়া সীমান্ত এলাকায় ‘সন্দেহজনকভাবে’ ঘোরাফেরা করার সময় ওই দুজনকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

“তারা সাংবাদিক পরিচয় গোপন রেখে ট্যুরিস্ট ভিসায় বাংলাদেশে এসে কক্সবাজারের বিভিন্ন সীমান্ত এলাকা থেকে ছবি তুলছিলেন এবং সরকারি কর্মকর্তাদের মিথ্যা তথ্য দিয়ে তথ্য সংগ্রহ করছিলেন।”

গ্রেপ্তার দুই মিয়ানমারের নাগরিক জিও ম্যাগাজিনে কাজ করার দাবি করেছেন বলে এএসপি আফজারুল জানান।

এদিকে জার্মানির জিও সাময়িকী কর্তৃপক্ষ মিনজাইয়ারি ও হকুনকে কারাগারে পাঠানোর খবর শুনে উদ্বেগ প্রকাশ করেছে বলে মিয়ানমারার গণমাধ্যমে খবর এসেছে।

মিয়ানমারের রাখাইন প্রদেশে সহিংসতার কারণে লাখ লাখ রোহিঙ্গা পালিয়ে বাংলাদেশে ঢুকেছে। সীমান্তে এই বিপর্যয়কর পরিস্থিতির ছবি সংগ্রহ করতে মিনজাইয়ারি ও হকুনকে এসেছিলেন বলে মিয়ানমারের গণমাধ্যমের প্রতিবেদনে বলা হয়।

আদালতে এই দুই বিদেশির পক্ষের আইনজীবী জ্যোতির্ময় বড়ুয়া বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, আগামী মঙ্গলবার কক্সবাজার জ্যেষ্ঠ বিচারিক হাকিম আদালতে আবার জামিন আবেদন করা হবে। এতেও জামিন পাওয়া না গেলে উচ্চ আদালতে যাবেন তারা।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •