১০ রোহিঙ্গার মৃতদেহ উদ্ধার

TEKNAF-PIC-13-09-2017-4_1.jpg

আবুল আলী, টেকনাফ:
মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যে সহিংসতার ঘটনায় বাংলাদেশে পালিয়ে আসার সময় নাফ নদীতে ফের নৌকা ডুবির ঘটনা ঘটেছে। এতে ১০ জনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

গত মঙ্গলবার রাত ও বুধবার সকালে থেকে টেকনাফের শাহপরী দ্বীপ থেকে শিশু ৩জন ২জন নারী, ৩জন পুরুষ ও সাবারাং মর্গ পাড়া থেকে ২জন নারীর মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

এই সময় তাদের কাজ থেকে সোনার গহনা ও মিয়ানমারের টাকা পাওয়া গেছে, ৮টি হাতের চুরি, ২টি ক্লিপ,২টি সেন, ১টি হাতের ব্যাচলাইট, ৬টি কানেরদুল, ৩টি আনটি, ১০টি লকেটফুল ও ১০হাজারে নোট ১৪টি, ৫হাজার নোট ১২টি, ১হাজারে ২টি, মোট সোনার পরিমান ৯ভরি ১ আনা, টাকা পরিমান ২লক্ষ ২হাজার টাকা পাওয়া যায়।

নৌকা ডুবির খবর ফেয়ে সাবরাং মর্গপাড়ায় ছুটে যায় নিখোঁজ দুই রোহিঙ্গা যুবককের মামা মংডু পেরাংপুরু এলাকার মোঃ উমর। সে জানান, গত সোমবার রাতে মিয়ানমারের মংডু মংনি পাড়া ঘাটে বাংলাদেশ থেকে একটি নৌকা গিয়ে তাদেরকে আনতে যায়। এতে আমার দুই ভাগিনা মংডু হারি পাড়া এলাকার মকবুল আহমদের ছেলে মোঃ আয়াজ ও মোঃ খালেদ ও একই এলাকার নজু মিয়ার ছেলে নুর কালাম ঐ নৌকাতে ছিল। তবে রাত পেরিয়ে সকালেও পর্যন্ত তাদের কোন খবর পাওয়া যায়নি।

টেকনাফ মডেল থানার ওসি মাইন উদ্দিন খান জানান, গত মঙ্গলবার রাতে ও বুধবার সকালে নাফ নদী থেকে তিন শিশু, তিন পুরুষ ও ৪ নারীর মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। মৃতদেহ কাজ থেকে টাকা ও সোনার গহনা পাওয়া গেছে সেগুলো আমাদের হেফাজতের রয়েছে। উদ্ধার মৃতদেহ গুলো প্রয়োজনীয় ব্যবস্হা নেওয়া হচেছ বলে জানিয়েছেন।

Top