জাহেদুল ইসলাম, লোহাগাড়া (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি:

চট্টগ্রামের লোহাগাড়া উপজেলার চরম্বা বায়ার পাড়ায় পূর্ব শত্রুতার জের ধরে আব্দুল মান্নান নামের (১৯) এক যুবক বিয়ে বাড়িতে বন্ধুর হাতে খুন হওয়ার সংবাদ পাওয়া গেছে। সে ওই এলাকার জিয়াবুল হোসেনের পুত্র। ঘটনাটি গত ১০ সেপ্টেম্বর রাত সাড়ে ১১টায় ঘটে।

ঘটনাস্থল পরিদর্শনে জানা যায়, নিহত আব্বদুল মান্নান ও ঘাতক আব্দুর রহিম ঘনিষ্ট বন্ধু। ঘটনারদিন মান্নান মায়ের সাথে প্রতিবেশী মতিউর রহমানের মেয়ের বিয়ের গায়ে হলুদের আনুষ্ঠানে যায়। মতিউর রহমানের ছেলে আলফাজ বলেন, মান্নান দোকানে যাওয়ার জন্য তার সাথে অনুষ্ঠান থেকে বের হয়ে রাস্তায় আসলে পেছন দিক থেকে তার চাচাতো ভাই আব্দর রহিম (২২) মান্নানকে লোহা দিয়ে মাথায় আঘাত করে পালিয়ে যায়। সাথে সাথে মান্নান মাঠিতে পড়ে যায়। সেখাই প্রচুর রক্ত ক্ষরণের ফলে সে মারা যায়। চিৎকারে স্বজনরা এগিয়ে আসেন। ঘাতক আব্দুর রহিম পালিয়ে যায়। সে ওই এলাকার ফয়েজ আহমদের পুত্র।

নিহত মান্নানের মা জাহান আরা বলেন, পূর্ব শত্রুতার জের ধরে মান্নানকে খুন করা হয়েছে। ৪ বছর আগে তার ছেলে মান্নান ও ঘাতক রহিমের সাথে ঝগড়া হয়। সে সময় রহিমের মাথায় আঘাত হয়। গ্রামের শালিশী বৈঠকে বিষয়টি মীমাংশা হয়। তিনি আরো বলেন, মা-ছেলে দুইজনে বিয়ের অনুষ্ঠানে যায়। সেখানেই ছেলে খুন হয়েছে। তবে কর্তৃপক্ষের নিকট সুষ্ঠু বিচার দাবী করেন।

খবর পেয়ে লোহাগাড়া থানা পুলিশর এসআই মাহাবুব সঙ্গিয় ফোর্স নিয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। ঘটনাস্থল রেথকে লাশ উদ্ধার করে সুরতহাল শেষে লাশ ময়না তদন্তের জন্য মর্গে প্রেরণ করেছেন বলে থানা সুত্রে প্রকাশ। ঘটনাস্থল থেকে পুলিশ ঘাতক রহিমের মা নুরুজাহান বেগম (৪০) ও তার বোন ছেনু আরা বেগম (২২) কে আটক করে থানায় নিয়ে আসেন বলে জানান লোহাগাড়া থানার ডিউটি অফিসার মো: রুবেল সরকার।

এ ঘটনা এলাকায় চাঞ্চল্য সৃষ্টি হয়। থানায় এখনো কোন মামলা হয়নি। তবে মামলা প্রক্রিয়াধীন বলে থানা সুত্রে প্রকাশ।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •