‘আরাকান রোহিঙ্গা আর্মি’র ডাক দেওয়া অস্ত্রবিরতি প্রত্যাখ্যান মিয়ানমারের

বিদেশ ডেস্ক:
মিয়ানমারে বিদ্রোহী রোহিঙ্গাদের সশস্ত্র সংগঠনের ডাক দেওয়া অস্ত্রবিরতি প্রত্যাখ্যান করেছে দেশটির সরকার। শনিবার ত্রাণ কার্যক্রমে সহায়তার জন্য একতরফা অস্ত্রবিরতির ডাক দিয়েছিলো আরাকান রোহিঙ্গা স্যালভেশন আর্মি-এআরএসএ। তবে এক টুইটবার্তায় মিয়ানমারের ডি ফ্যাক্টো নেত্রী অং সান সুচির মুখপাত্র বলেছেন যে সরকার ‘সন্ত্রাসীদের’ সাথে কোন মধ্যস্থতা করবে না। সোমবার ব্রিটিশ সংবাদমাদ্যম বিবিসির এক প্রতিবেদন থেকে এসব তথ্য জানা যায়।

প্রতিবেদনে বলা হয়, রবিবার থেকে মিয়ানমারের রোহিঙ্গা বিদ্রোহীরা একতরফা ভাবেই এক মাসের জন্য অস্ত্রবিরতির ঘোষণা দেয়। এক বিবৃতিতে বিদ্রোহীরা জানায়, তারা রাখাইনে মানবিক সংকট বিবেচনায় এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে এবং তারা আশা করছে মিয়ানমারের সেনাবাহিনীও সেখানে অস্ত্রবিরতি করবে।

আরসা বা আরাকান রোহিঙ্গা স্যালভেশন আর্মি শনিবার দেয়া এক বিবৃতির মাধ্যমে অস্ত্রবিরতির এই ঘোষণা দেয়। গত ২৫ আগস্ট পুলিশের উপর এই আরসার চালানো হামলার প্রতিক্রিয়াতেই রাখাইনে সেনা অভিযান শুরু হয়, যার কারণে প্রায় তিন লাখ রোহিঙ্গা মুসলমান প্রতিবেশী বাংলাদেশে পালিয়ে আসতে বাধ্য হয়।

সাম্প্রতিক ক্লিয়ারেন্স অপারেশনের লক্ষ্যে সেনা অভিযান শুরুর কয়েকদিনের মাথায় ‘বিদ্রোহী রোহিঙ্গা’রা ২৪টি পুলিশ চেকপোস্টে বিদ্রোহীদের সমন্বিত হামলায় অন্তত ১০৪ জন নিহত হওয়ার কথা জানিয়ে রোহিঙ্গাবিরোধী অভিযান জোরদার করে সরকার। এরপর থেকেই মিলতে থাকে বেসামরিক নিধনযজ্ঞের আলামত। পাহাড় বেয়ে ভেসে আসতে শুরু করে বিস্ফোরণ আর গুলির শব্দ। পুড়িয়ে দেওয়া গ্রামগুলো থেকে আগুনের ধোঁয়া এসে মিশছে মৌসুমী বাতাসে। মায়ের কোল থেকে শিশুকে কেড়ে নিয়ে শূন্যে ছুড়ছেন সেনারা।

এরইমধ্যে বাংলাদেশে প্রায় তিন লাখ রোহিঙ্গা প্রবেশের কথা জানিয়েছে জাতিসংঘের শরণার্থী বিষয়ক সংস্থা ইউএনএইচসিআর। যারা বাংলাদেশে আসতে পারেননি, তাদের মানবিক সহায়তায় গতি আনতেই অস্ত্রবিরতির ঘোষণা দেওয়ার কথা জানিয়েছে এআরএসএ।

রাখাইনের সহিংসতা প্রসঙ্গে মিয়ানমারের সরকারের দাবি, রোহিঙ্গা জঙ্গি এবং মুসলমান গ্রামবাসীরা নিজেরাই নিজেদের ঘরবাড়ি পুড়িয়ে দিচ্ছে এবং অমুসলিমদের উপর হামলা চালাচ্ছে। এদের অনেকেই সহিংসতা থেকে বাঁচতে পালিয়ে যাচ্ছে।

cbn
কক্সবাজার নিউজ সিবিএন’এ প্রকাশিত কোনও সংবাদ, কলাম, তথ্য, ছবি, পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ।

সর্বশেষ সংবাদ

ভারত থেকে বাংলাদেশে ঢুকেছে ১৩০০ রোহিঙ্গা

তৃতীয় সাবমেরিন ক্যাবলে যুক্ত হচ্ছে বাংলাদেশ

সড়কে এক মূর্তিমান আতঙ্কের নাম ডাম্পার!

যেভাবে গড়ে উঠেছিল হাওড়া ব্রিজ

ফাইভ-জি আসছে ২০২০ সালে

রোনালদোর গোলে সুপার কোপা জিতলো জুভেন্টাস

আস্থা ভোটে টিকে গেলেন থেরেসা মে

শিক্ষকরাই হচ্ছেন মানুষ গড়ার কারিগর: ইউএনও আবু আসলাম

অধিকার ও অস্তিত্ব রক্ষায় রোহিঙ্গাদের কারণে ক্ষতিগ্রস্তদের ১০ দফা দাবী

শাহপরীরদ্বীপে সংঘবদ্ধ চক্রের ছয় সদস্য আটক

উখিয়ায় জেলা প্রশাসকের কম্বল ও গৃহসামগ্রী বিতরণ

বদরখালী পৌরসভা, মাতামুহুরী হবে উপজেলা- এমপি জাফর আলম

বিজয় সমাবেশ সফল করতে কক্সবাজারে আ. লীগের প্রস্তুতি সভা

বালুখালীতে ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে হামলা: টাকা লুট, অস্ত্র উদ্ধার

কক্সবাজার শহরে প্রাইভেট কারে আগুন

প্রখ্যাত সাংবাদিক আমানুল্লাহ কবীরের মৃত্যুতে সাংবাদিক ইউনিয়নর কক্সবাজার’র শোক

সুশাসন প্রতিষ্ঠার মাধ্যমে উন্নয়নে কক্সবাজার-রামুকে এগিয়ে নেয়া হবে- এমপি কমল

১৫ হোটেল ও রেস্তোরাঁকে দুই লাখ ৪৫ হাজার টাকা জরিমানা

চকরিয়ায় উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে সেবার মাননোন্নয়নে সনাক এর মতবিনিময় সভা 

‘কাজী রাসেলকে সদর উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান হিসেবে দেখতে চায় জনগণ’