হাফেজ মুহাম্মদ কাশেম, টেকনাফ:

টেকনাফের রোহিঙ্গা ক্যাম্প এবং অনুপ্রবেশকারী রোহিঙ্গা পরিস্থিতি পরিদর্শন শেষে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বে নিয়োজিত মন্ত্রী মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া এমপি বীরবিক্রম বলেছেন, মানবিক দিক বিবেচনা করে সাময়িকের জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে নির্যাতিত রোহিঙ্গাদের বাংলাদেশে আশ্রয় দেওয়া হচ্ছে। বাংলাদেশ সরকার আশ্রিত রোহিঙ্গাদের ফেরত নেওয়ার ব্যাপারে আন্তর্জাতিক ভাবে চাপ প্রয়োগ করা হচ্ছে।

৯ সেপ্টেম্বর শনিবার দুপুর সাড়ে ১২টায় টেকনাফ নিবন্ধিত নয়াপাড়া শরানার্থী রোহিঙ্গা ক্যাম্প এলাকা পরিদর্শনে গিয়ে আশ্রয় নেওয়া নতুন রোহিঙ্গাদের সার্বিক বিষয়ে খোজঁখবর নেন দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রী।

পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের প্রেস ব্রিফিংকালে মন্ত্রী এক প্রশ্নের জবাবে বলেন, ছড়িয়ে ছিটিয়ে আশ্রয় নেওয়া রোহিঙ্গাদের এক জায়গায় নিয়ে এসে নিন্ধনের আওতায় আনা হবে। মিয়ানমারে পরিস্থিতি স্বভাবিক হলে পালিয়ে আসা রোহিঙ্গাদের স্বদেশে ফেরত পাঠানো হবে। ইতিমধ্যেই আড়াই হাজার একর জায়গা চিহ্নিত করে তাদের থাকার ব্যবস্থা করা হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, সীমান্ত পাড়ি দিয়ে ইতিমধ্যে কি পরিমাণ রোহিঙ্গা বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছে তার কোনো সঠিক পরিসংখ্যান না থাকলেও প্রায় তিন লক্ষাধিক রোহিঙ্গা মিয়ানমার থেকে বাংলাদেশে পালিয়ে

এসেছে। এসময় মন্ত্রীর সাথে ছিলেন দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের সচিব মোঃ শাহ কামাল, উখিয়া-টেকনাফ আসনের সংসদ সদস্য আব্দুর রহমান বদি, শরনার্থী ত্রাণ ও প্রত্যাবাসন কমিশনার মোঃ আবুল কালাম, টেকনাফ উপজেলা চেয়ারম্যান জাফর আহমদ, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জাহিদ হোসেন সিদ্দিক, নয়াপাড়া শরনার্থী ক্যাম্প ইনচার্জ সাইফুল ইসলাম, টেকনাফ মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ মাইন উদ্দিন খান প্রমূখ।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •