cbn  

বিশেষ প্রতিবেদক:

২০১৬ সালের ১৭ জানুয়ারী দুই শিশুকে অপহরণের পর মুক্তিপন বাবত টাকা দাবি করে অপহরণকারী চক্র। কিন্তু টাকা দিতে না পেয়ে অপহরণকারী চক্র শ্বাসরোধ করে হত্যা করে রামু উপজেলার গর্জনিয়া ইউনিয়নের বড়বিল গ্রামের মো.ফোরকান আলীর দুই শিশু সন্তান হাসান (১১) ও হোসেন (০৮) নামের দুই ভাইকে।

এ ঘটনায় রামু থানায় হত্যা মামলা রুজু করেন নিহতের বাবা। মামলাটি রুজু হওয়ার পর থেকে আসামি একই এলাকার আব্দুল মাবুদ প্রকাশ মধুর ছেলে মো.শহীদুল্লাহ গ্রেফতার এড়াতে এলাকা ছেঁেড় পালিয়ে যায়। তবে কোরবানী ঈদে স্বজনদের সাথে দেখা করতে ঘাতক শহীদুল্লাহ এলাকায় এসেছে বলে জানতে পারেন র‌্যাব-৭ কক্সবাজার ক্যাম্পের সদস্যরা। এরপর থেকে তাকে গ্রেফতারে র‌্যাবের একটি দল অভিযানের ছক তৈরী করেন। অবশেষে ৮ সেপ্টেম্বর (শুক্রবার) রাত পৌনে ১১টার দিকে র‌্যাব কক্সবাজার ক্যাম্পের অধিনায়ক মেজর মো.রুহুল আমিনের নেতৃত্বে র‌্যাব সদস্যরা অভিযান চালিয়ে কক্সবাজার সদর উপজেলা জেলগেট এলাকা থেকে আসামি শহীদুল্লাহকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হন।

অভিযানের সত্যতা নিশ্চিত করে র‌্যাব-৭ কক্সবাজার ক্যাম্পের অধিনায়ক মেজর মো.রুহুল আমিন বলেন, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে জানতে পেরে রামু থানার যুগল শিশু হত্যা মামলার এজাহার ভুক্ত আসামী মোঃ শহিদুল্লাহ (২২) কে ঘটনার প্রায় ২০ মাস পর গতকাল ৮ সেপ্টেম্বর রাতে কক্সবাজার সদর উপজেলার জেলগেট এলাকা থেকে অভিযান চালিয়ে গ্রেফতার করা হয়েছে। তিনি বলেন, ২০১৬ সালে ১৭ জানুয়ারী মুক্তিপনের টাকা দিতে না পারায় অপহরণকারীরা শ্বাসরোধ করে হত্যা করে রামু উপজেলার গর্জনিয়া ইউপি¯’ বড়বিল গ্রামের মোঃ ফোরকান আলীর দুই শিশু সন্তান হাসান (১১) ও হোসেন (০৮) নামের দুই ভাইকে। গ্রেফতারকৃত আসামীর বিরুদ্ধে রুজুকৃত মামলা মোতাবেক পরবর্তী আইনানুগ ব্যাব¯’া গ্রহনের জন্য রামু থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •