নিজস্ব প্রতিনিধি, কুতুবদিয়া :

কুতুবদিয়ায় গৃহবধুকে ভুঁয়া রেজিস্ট্রির মাধ্যমে লাখ টাকা হাতিয়ে নেওয়ার গুরুতর অভিযোগ উঠেছে এক প্রতারকের বিরুদ্ধে। অভিযুক্ত প্রতারকের নাম সোহেল ছরোয়ার উদ্দিন খালেক (৩৮)। সে উপজেলার আলী আকবর ডেইল ইউনিয়নের পুতুইন্যার পাড়ার মৃত আবদুল খালেকের ছেলে। সোহেল বিভিন্ন জনের সাথে দীর্ঘদিন ধরে এ ধরনের প্রতারণা করে আসছে বলে অভিযোগ এলাকাবাসীর। এ ব্যাপারে কুতুবদিয়া সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে প্রতারণার মামলা দায়ের (মামলা নং-সি আর ১৬/২০১৬) করেছে একই এলাকার মোজাম্মেল হকের স্ত্রী ভুক্তভোগী তছলিমা আকতার।

মামলা সূত্রে জানা যায়, কুতুবদিয়া উপজেলার আলী আকবর ডেইল ইউনিয়নের পুতুইন্যার পাড়া (৫ নং ওয়ার্ড)‘র মৃত আবদুল খালেকের পূত্র সোহেল ছরোয়ার খালেক বিগত ২০১৪ সালের ১১ সেপ্টেম্বর পেকুয়া উপজেলার করিয়ারদিয়া এলাকায় ১৮ শতক জমি ১ লাখ টাকা মূল্যে ১৯৪৪ নং রেজিস্ট্রি দলিল মূলে তছলিমা আকতারের কাছে সাব বিক্রি করে।

তছলিমা আকতার জমি বুঝিয়ে দিতে সোহেল ছরোয়ারকে চাপ সৃষ্টি করলে আজ দেব কাল দেব বলে কালক্ষেপন করতে থাকে। ইতোমধ্যে তছলিমা আকতার ক্রয়কৃত জমি দখলে নিতে গেলে ওই এলাকার মৃত খলিলুর রহমানের ছেলে সাহাব উদ্দিন বাঁধা দেয়। বাঁধার কারণ খুঁজতে গিয়ে দেখা যায় একই জমি সোহেল ছরোয়ার গত ২০১৪ সালের ১৮ মার্চ ৬৬৪ নং দলিল মূলে সাব বিক্রি করে। জেনেশুনে পুনরায় এই জমি সাড়ে ৭ মাস পর তছলিমা আকতারকে বিক্রি করে জঘন্য প্রতারণার ফাঁদে ফেলে ১ লক্ষ টাকা হতিয়ে নেয় প্রতারক সোহেল।

এ ব্যাপারে স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিদের নালিশ দেওয়ার পরও কোন প্রতিকার না পাওয়ায় তছলিমা আকতার বাদী হয়ে সোহেল ছরোয়ারের বিরুদ্ধে আদালতে মামলা করেছেন। কিন্তু মামলার পরেও টাকা পরিশোধ না করে সোহেল প্রকাশ্যে তছলিমাকে হুমকি দিয়ে বেড়াচ্ছে। এ বিষয়ে দ্রুত প্রশাসনের হস্তক্ষেপ চেয়েছেন তছলিমা।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •