cbn  

শফিক আজাদ, সীমান্ত থেকে ফিরে।

মিয়ানমারের সেনা ও নিরাপত্তা বাহিনীর নির্যাতনের শিকার হয়ে পালিয়ে আসা রোহিঙ্গা নারীর সন্তান প্রসব হয় নাফনদীতে নৌকার উপরে। ৭দিন আগে জন্ম নেওয়া নবজাতক শিশু সহ তাঁর পিতা-মাতা আশ্রয় নিয়েছে কু্তুপালং রাস্তার পার্শ্বে এক ঝুপড়িতে। তবে গত ৫দিন ধরে না খেয়ে আছে তারা। বৃহস্পতিবার সকাল ১১টায় উখিয়ার কুতুপালং ঝুপড়িতে কথা হয় ওই নবজাতক পিতা আহমদ উল্লাহর সাথে। সে বলেন কোরবানের ঈদের দিন রাত ১২টার দিকে নাফনদীতে নৌকার উপর তাঁর স্ত্রীর প্রসব যন্ত্রণা শুরু হলে ছটফট করতে থাকে। তখন নৌকায় শুধুমাত্র ১জন নারী ছিল, বাকীরা সবাই পুরুষ।
তখন চোঁখে মুখে কিছু না দেখে আমি নিজেই সহযোগিতা করি আমার স্ত্রীকে।
স্ত্রী খালেদা বেগম (১৮) বলেন এটি আমার প্রথম সন্তান। তাও আবার ছেলে। এখনো নাম রাখিনি। যেহেতু কোরবানের দিন জন্ম হয়েছে তাই মনে মনে সিদ্ধান্ত নিয়েছি কোরবান আলী নাম রাখব। হাসি মুখে আরো বলেন, সন্তানের চেহেরা দেখে সে মিয়ানমারের সেই করুণ স্মৃতি ভুলে গেছে। গত ৫দিন তারা স্বামী স্ত্রী পানি ছাড়া কিছুই খাইনি বলে জানান সে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •