জাগোনিউজ :
সিরিজ শুরুর আগে থেকেই সবার মুখে ঘুরে বেড়াচ্ছিল ২-০ তে সিরিজ জয়। ঢাকা টেস্টে বাংলাদেশ জয় পাওয়ার পর গুঞ্জনটা আরও তীব্র হয়। চতুর্থদিন সকালে অসিদের এক উইকেট তুলে নিয়ে যখন বাংলাদেশ দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাটিং করতে নামে তখন ধারণা করছিল সবাই, বড় সংগ্রহই করতে যাচ্ছে।

কিন্তু অস্ট্রেলিয়ার বোলারদের নিয়ন্ত্রিত বোলিংয়ে ১৫৭ রানেই অলআউট হয় বাংলাদেশ। অসিদের লক্ষ্য দাঁড়ায় ৮৬। আর মামুলি এই লক্ষ্য তিন উইকেট হারিয়েই পার হয়ে যায় অস্ট্রেলিয়া। অসিসের এ জয়ে ড্র দিয়েই শেষ হল ঐতিহাসিক এই সিরিজ।

বাংলাদেশের দেওয়া ৮৬ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে বিনা উইকেটে পার হয়ে যাবে অস্ট্রেলিয়া এমন ধারণা করছিল সবাই। কিন্তু সবার ধারণাকে ভুল প্রমাণিত করে কাটার মাস্টার মোস্তাফিজ তুলে নিয়েছেন প্রথম ইনিংসের সেঞ্চুরিয়ান ডেভিড ওয়ার্নারের উইকেটটি।

মোস্তাফিজের পরই আঘাত হানেন তাইজুল-সাকিব। তুলে নিয়েছেন স্মিথ-রেনশো’র উইকেট। ইনিংসের দশম ওভারের প্রথম বলেই তাইজুল তার ঘূর্নীতে স্মিথকে বোকা বানিয়ে মুশফিকের গ্লভসে ধরা দেয়ান। ব্যক্তিগত ১৬ রান করে সাজঘরে ফেরেন অসি দলপতি। পরের ওভারেই একইভাবে মুশফিকের সহয়তায় রেনশোকে ফেরান সাকিব।

নিজের তৃতীয় ওভারে বল করতে এসে পঞ্চম বলটি বাউন্স দেন মোস্তাফিজ। হুক করতে গিয়ে মিড উইকেট অঞ্চলে সৌম্য সরকারের হাতে ধরা পড়েন। এর আগে প্রথম ইনিংসেও তার বলে লেগ গালিতে ধরা পড়েছিলেন অস্ট্রেলিয়ার উদ্বোধনী এই ব্যাটসম্যান।

এর আগে অস্ট্রেলিয়ান বোলারদের মাপা বোলিংয়ে ১৫৭ রানেই থামে বাংলাদেশের দ্বিতীয় ইনিংস। আর জয়ের জন্য অস্ট্রেলিয়ার লক্ষ্য দাঁড়ায় ৮৬ রানের। অস্ট্রেলিয়ার হয়ে লিওন নিয়েছেন ৬টি উইকেট। আর দুটি করে উইকেট নিয়েছেন ও’কিফ ও কামিন্স।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •