‘তিন ছেলেকে ধরে নিয়ে গেছে, নাতিকে হত্যা করেছে, আমি আছি নো-ম্যানস ল্যান্ডে ’

বাংলা ট্রিবিউন

‘আমার ছয় ছেলের মধ্যে তিন জনকে একসঙ্গে ধরে নিয়ে গেছে মিয়ানমারের সেনাবাহিনী। আবুইয়া নামের এক নাতিকে চোখের সামনে গলাকেটে হত্যা করেছে তারা। এতে আমি দিশেহারা হয়ে পড়ি। কোনও উপায় না দেখে এক নাতির সহায়তায় এইখানে (নো-ম্যানস ল্যান্ডে) আসি।  আশির দশকে মিয়ানমার জান্তা সরকারের অত্যাচার, নির্যাতন, নিপীড়ন দেখেছি। নব্বই দশকের বর্বরতাও দেখেছি। কিন্তু এবারের মতো এত ভয়াবহ বর্বরতা আগে কখনও দেখিনি। গত তিন দিন ধরে রাখাইন রাজ্যে যেভাবে সাধারণ মানুষকে হত্যা করছে, ঘরবাড়ি জ্বালিয়ে দিচ্ছে, এতে মনে হয় রাখাইন রাজ্য মরুভূমিতে পরিণত হবে।’ বাংলা ট্রিবিউনকে একথাগুলো বলেছেন মিয়ানমার থেকে পালিয়ে এসে জলপাইতলীর নো-ম্যানস ল্যান্ডে থাকা ৭০ বছর বয়সী রশিদ আহমদ।

মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যের ঢেঁকিবনিয়া ইউনিয়নের মিয়ারপাড়া গ্রামের বাসিন্দা রশিদ আহমদ। ছয় ছেলে, চার মেয়ে ও স্ত্রীকে নিয়ে তার সংসার। রয়েছে নাতি-নাতনিসহ অসংখ্য আত্মীয় স্বজন। রাখাইন রাজ্যে এবারের মতো এত ভয়াবহ ও বর্বর নির্যাতন তিনি এর আগে কখনও দেখেননি। তাই মিয়ানমারের সেনাবাহিনীর নির্যাতনের হাত থেকে প্রাণ বাঁচাতে অন্যদের মতো তিনিও পালিয়ে এসেছেন নাইক্ষ্যংছড়ির জলপাইতলীর নো-ম্যানস ল্যান্ডে।
রশিদ আহমদ বলেন, ‘আমার ছয় ছেলের মধ্যে তিন জনকে একসঙ্গে ধরে নিয়ে গেছে মিয়ানমারের সেনাবাহিনী। আবুইয়া নামের এক নাতিকে চোখের সামনে গলাকেটে হত্যা করেছে তারা। এতে আমি দিশেহারা হয়ে পড়ি। কোনও উপায় না দেখে এক নাতির সহায়তায় এইখানে আসি।’.রশিদ আহমদের সাক্ষাৎকার নিচ্ছেন বাংলা ট্রিবিউন প্রতিনিধি, পাশেই নো-ম্যানস ল্যান্ডে জড়ো হওয়া রোহিঙ্গা নারী-পুরুষ
তিনি আরও বলেন, ‘আমরা যুগ যুগ ধরে নির্যাতিত ও নিপীড়িত। নিজ দেশে থেকেও স্বাধীনভাবে চলাফেরা করতে পারি না। নাগরিকত্ব থেকে বঞ্চিত আমাদের এই রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠি। ’তাই মানবিক দৃষ্টিকোণ থেকে রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠির পাশে দাঁড়াতে বিশ্ব সম্প্রদায়ের প্রতি আহ্বান জানান তিনি।
বয়সের ভারে নুয়ে পড়া এই বৃদ্ধ চলাফেরা করেন কাঠের লাঠির ওপর ভর দিয়ে। দীর্ঘ ২০ কিলোমিটার পথ পায়ে হেঁটে সীমান্তে পৌঁছেন। একটু পর পর বিশ্রাম নিয়ে নাতির সহায়তায় সীমান্তের জিরো পয়েন্ট পর্যন্ত এসে ক্লান্ত হয়ে পড়েন তিনি। বৃদ্ধ রশিদের সঙ্গে যখন কথা হচ্ছিল, তখন একটু দূরে নবজাতক এক শিশুকে বুকে জড়িয়ে দাঁড়িয়ে থাকতে দেখা যায় তার বড় ছেলে আব্দুল জব্বারকে। তিনিও এই দুর্দশার কথা বলে কেঁদে ফেলেন।

বাবার মতো আব্দুল জব্বারও বলেন, ‘আজ বাড়িঘর ফেলে এক অজানা গন্তব্যহীন যাত্রায় আমরা। জানি না কখন কোথায় কী হয়। জানি না আদৌ আমরা আর বাড়িতে ফিরতে পারবো কি না?’
তিনি মিয়ানমার সরকারের প্রতি প্রশ্ন রাখেন, ‘নাগরিকত্ব না দিক ভালো কথা, কিন্তু এই বর্বরতা কেন? কেন এত যুবককে ধরে নিয়ে হত্যাযজ্ঞ চালানো হচ্ছে?’.মিয়ানমার থেকে পালিয়ে আসা রোহিঙ্গারা
শুধু রশিদ আহমদ ও আব্দুল জব্বার নয়, নাইক্ষ্যংছড়ির জলপাইতলীর এই নো-ম্যানস ল্যান্ডে অবস্থান নিয়েছেন হাজার হাজার রোহিঙ্গা নারী, পুরুষ ও শিশু। চার দিন ধরে বিজিবি’র কড়া নজরদারিতে থাকা এসব রোহিঙ্গাদের দেখা দিয়েছে মানবিক বিপর্যয়। খাদ্য, বাসস্থান ও বস্ত্রসহ নানা সংকটের কারণে আজ তারা বিপর্যস্ত। তারা জানেন না এই সমস্যার সমাধান কোথায়। প্রসঙ্গত, গত ২৪ আগস্ট মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যে পুলিশ পোস্টে হামলা চালায় সে দেশের একটি বিদ্রোহী গ্রুপ। এতে ১২ পুলিশ সদস্যসহ অনেক রোহিঙ্গা হতাহত হয়। এঘটনার পর প্রতিদিনই বাংলাদেশে আশ্রয় নিতে আসছে অসংখ্য রোহিঙ্গা। নাফ নদীর জলসীমানা থেকে শুরু করে স্থল সীমানা পার হয়ে জিরো পয়েন্টে অবস্থান নিয়েছে হাজার হাজার রোহিঙ্গা। এর আগে গত বছরের ৯ অক্টোবরের পর থেকে মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যে একইভাবে হামলার ঘটনা ঘটে। তখন প্রাণ ভয়ে বাংলাদেশে পালিয়ে আসে প্রায় ৮৭ হাজার রোহিঙ্গা। এরপর আন্তর্জাতিক মহল নানাভাবে চাপ সৃষ্টি করে মিয়ানমার সরকারের ওপর। কিন্তু এর কোনও তোয়াক্কা না করে রাখাইনে ফের সেনা মোতায়েন করলে বিদ্রোহী গ্রুপের সঙ্গে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে সে দেশের সেনা বাহিনী ও পুলিশ।

cbn

সর্বশেষ সংবাদ

ইসলামী জনকল্যাণ ফাউন্ডেশনের ঈদ পুনর্মিলনী

কক্সবাজার সদর থানা পুলিশের অভিযানে গ্রেফতার- ২৭

পেকুয়ায় সংগ্রামের জুমে চলছে বালি উত্তোলন

B a n g a b a n d h u : The epic poet of politics

সদর উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতির উপর হামলার প্রতিবাদে জেলা ছাত্রলীগের মিছিল-সমাবেশ

দৈনিক সৈকত সম্পাদকের পিতা হাবিবুর রহমানের ৩৩তম মৃত্যুবার্ষিকী আজ

কক্সবাজার জেলা জয় বাংলা তথ্য-প্রযুক্তি লীগের আহবায়ক তুহিনের বিবৃতি

আজ শুভ জন্মাষ্টমী: কক্সবাজারে নানা আয়োজন

কক্সবাজার ইনার হুইল ক্লাবের শিক্ষা উপকরণ বিতরণ

টেকনাফে যুবককে তুলে নিয়ে হত্যা করলো রোহিঙ্গা সন্ত্রাসীরা

সব ধরনের মতামত প্রকাশের নিরাপত্তা আছে?

চীন বলেছে মধ্যস্থতার দায়িত্ব নিয়েছি : মায়ানমার কিন্তু মুখ খুলছেনা

যে মসজিদ নির্মাণে কাজ করে ২ লাখ ১০ হাজার শ্রমিক

সুশিক্ষায় শিক্ষিত হয়ে দেশের জন্য কাজ করতে হবে

জেলা আ.লীগের চিকিৎসা ক্যাম্প শুক্রবার, চিকিৎসা পাবে ৫হাজার মানুষ

চকরিয়ায় দুই হাজার মিটার নিষিদ্ধ কারেন্ট জাল আগুনে পুড়ে ধ্বংস

নিরহঙ্কার জীবন : মানবিক উৎকর্ষের চাবিকাঠি

JOB VACANCY ANNOUNCEMENT – HumaniTerra International (HTI)

প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদ

বিদ্যুৎস্পৃষ্টে সদ্যবিবাহিত যুবকের মৃত্যু ইসলামাবাদে