cbn  

ইউরোপীয় ইউনিয়নের (ইইউ) রাষ্ট্রদূত পিয়েরে মায়াদুনের সঙ্গে বিএনপির একটি উচ্চপর্যায়ের বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়েছে। বৃহস্পতিবার (১৭ আগস্ট) বিকাল সাড়ে ৫টা থেকে রাজধানীর গুলশানে দলের চেয়ারপারসনের রাজনৈতিক কার্যালয়ে তাদের আলোচনা শুরু হয়। বৈঠকটি স্থায়ী ছিল প্রায় ঘণ্টাখানেক।
ইইউ রাষ্ট্রদূত পিয়েরে মায়াদুনকে উদ্ধৃত করে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য সাবেক সেনাপ্রধান লে. জেনারেল (অব.) মাহবুবুর রহমান বাংলা ট্রিবিউনকে জানান, “তিনি আমাদের বলেছেন, ইইউ বাংলাদেশ ও বাংলাদেশের মানুষের বন্ধু। বাংলাদেশ একটি গণতান্ত্রিক রাষ্ট্র। আমরা চাই, নিরপেক্ষ নির্বাচনের মাধ্যমে এখানে গণতন্ত্র আরও শক্ত হোক।’
তবে সভার বিষয়ে বিএনপির পক্ষ থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে গণমাধ্যমকে কিছু জানানো হয়নি।
বৈঠকের বিষয়ে জানতে চাইলে লে. জেনারেল (অব.) মাহবুবুর রহমান বাংলা ট্রিবিউনকে আরও বলেন, ‘ইইউ রাষ্ট্রদূত বাংলাদেশ থেকে বিদায় নিচ্ছেন। এটা ফেয়ারওয়েল ছিল। ইইউ একটি গুরুত্বপূর্ণ কমিউনিটি, আমাদের চেয়ারপারসন নেই বলে আমরা সবাই একসঙ্গে গিয়ে তাকে ফেয়ারওয়েল দিয়েছি।’
ইইউ রাষ্ট্রদূতের সঙ্গে বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন বিএনপি’র মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, স্থায়ী কমিটির সিনিয়র সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ, ব্যারিস্টার জমিরউদ্দিন সরকার, লে. জেনারেল (অব.) মাহবুবুর রহমান, ড. মঈন খান, নজরুল ইসলাম খান, দলের উপদেষ্টা কাউন্সিলের সদস্য রিয়াজ রহমান, বিশেষ সম্পাদক আসাদুজ্জামান রিপন, সাংগঠনিক সম্পাদক শামা ওবায়েদ ও আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক রুমিন ফারহানা। সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে ইইউ রাষ্ট্রদূত বিএনপির কার্যালয় থেকে বেরিয়ে আসেন।
এর আগে বিএনপি চেয়ারপারসনের মিডিয়া উইং কর্মকর্তা শায়রুল কবির খান বাংলা ট্রিবিউনকে বলেছেন, ‘বৈঠকের বিষয়ে আমার জানা নেই।’

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •