বিশেষ সংবাদদাতা:
টেকনাফের বাহারছড়ায় ইয়াবা ব্যবসায়ীর ছুরিকাঘাতে ফরিদুল ইসলাম (৪৫) নামে এক ব্যক্তি আহত হয়েছে। বুধবার (১৬ আগষ্ট) বিকাল সাড়ে ৩টার দিকে ইউনিয়নের নোয়াখালীপাড়ায় ঘটনাটি ঘটে।
আহত ফরিদুল ইসলাম ওই এলাকার বদিউর রহমানের ছেলে। তাকে গুরুতর অবস্থায় জেলা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। ঘটনায় জড়িত কেউ আটক হয়নি।
একই এলাকার চিহ্নিত ইয়াবা ব্যবসায়ী শহীদুল্লাহ ও ছৈয়দুল্লাহ নামক দুই ব্যক্তি ঘটনাটি ঘটিয়েছে বলে জানায় আহতের মেয়ে কক্সবাজার সিটি কলেজের ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিভাগের (সম্মান) প্রথম বর্ষের ছাত্রী জোসনা আকতার।
সে জানায়, দুই বছর আগে তার খালাতো বোন পারভিন আকতারকে বিয়ের প্রলোভন দিয়ে তুলে নিয়ে যায় নোয়াখালী পাড়ার ইছহাকের ছেলে ছলিমুল্লাহ। বেশ কয়েকবার নির্যাতন করে বাবার বাড়িতে পাঠিয়ে দেয় পারভিনকে।
স্বামী ইছহাকের বন্ধু শহীদুল্লাহ ও ছৈয়দুল্লাহ পারভিনকে আবারো তুলে নিতে গেলে বাঁধা দিলে চাচা জাফর আলমকে মারধর করে তারা দুইজন।
আহতের মেয়ে জোসনা আকতার আরো জানায়, চাচাকে বাঁচাতে গেলে তার বাবার বুক লক্ষ করে ছুরিকাঘাত করে শহীদুল্লাহ। এতে তিনি রক্তাক্ত জখম হন। স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে পাঠায়। পরে স্বাস্থ্যের অবনতি হওয়ায় চিকিৎসক জেলা সদর হাসপাতালে রেফার করে।
টেকনাফ মডেল থানার ওসি মো মইন উদ্দিন খান ঘটনার খোঁজ খবর নিয়ে ব্যবস্থা নেবেন বলে জানান।
জেলা সদর হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার (আরএমও) ডাঃ মোঃ শাহীন আবদুর রহমান চৌধুরী জানান, ফরিদুল ইসলামের বুকে ছুরিকাঘাতের চিহ্ন রয়েছে। প্রচুর রক্ত ক্ষয় হয়েছে। যত্নের সাথে হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে।

 

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •