কক্সবাজারে ২০ হোটেলে বর্ষাকালীন অফার ঘোষণা

শাহেদ মিজান, সিবিএন:
পর্যটন নগরী কক্সবাজারের বিলাসবহুল ২০ হোটেল রুম ভাড়ায় বিশেষ অফার ঘোষণা করা হয়েছে। মাত্র ৩০০ থেকে ৫০০ টাকার মধ্যে ওই ২০ হোটেলের রুম পাওয়া যাবে। বর্ষাকালীন মৌসুমে এই অফার ছাড়া হয়েছে। আগামী ৩০ আগষ্ট পর্যন্ত এই অফার বলবৎ থাকবে। মঙ্গলবার কক্সবাজার প্রেসক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলনে এই ঘোষণা দেয় কক্সবাজার হোটেল মোটেল ও গেস্টহাউজ মালিক সমিতি।

সংবাদ সম্মেলনে কক্সবাজার হোটেল মোটেল ও গেস্টহাউজ মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক আবুল কাশেম সিকদার জানান, বর্ষা উপলক্ষ্যে পর্যটকদের বিশেষ অফার ছেড়েছে কক্সবাজার হোটেল মোটেল ও গেস্টহাউজ মালিক সমিতির আওতাভুক্ত ২০ হোটেল। এসব হোটেলের স্বাভাবিক ভাড়া এক হাজার টাকার উপরে। মূলত বর্ষাকালে পর্যটনের মন্দা মৌসুমেও পর্যটক আকৃষ্ট করতে এই অফার ঘোষণা করা হয়েছে। হোটেলগুলো হলো- তাহের ভবন এন্ড গেষ্ট হাউস, ডায়মন্ড প্যালেস গেস্ট হাউস, অ্যালবাট্রস রিসোর্ট, সী-আরাফাত রিসোর্ট, আর.এম গেষ্ট হাউস, সী-ল্যান্ড গেষ্ট হাউস, লেমিচ, রিসোর্ট, জিয়া গেষ্ট ইন, জিয়া গেষ্ট হাউস, কক্স ইন, সোহাগ গেষ্ট হাউস, বীচ হলিডে গেষ্ট হাউস, ওয়েল পার্ক রিসোর্ট, কক্স ভিউ রিসোর্ট, সিলিকন শাকিরা বে রিসোর্ট, ঊর্মি গেস হাউস, মাসকাট হলিডে রিসোর্ট, হোটেল বে- মেরিনা, গ্যালাক্সী রিসোর্ট লি: ও সী-কিং গেষ্ট হাউস।
আবুল কাশেম সিকদার আরো জানান বর্ষাকালীন অফারের আওতায় ২০ হোটেলের ১০টি করে মোট ২’শটি কক্ষ অফারের আওতায় থাকবে। ৩০০ থেকে ৫০০ টাকার এই অফারটি আগামী ৩০ আগষ্ট পর্যন্ত বলবৎ থাকবে।

সংবাদ সম্মেলনে কক্সবাজার হোটেল মোটেল ও গেস্টহাউজ মালিক সমিতি কর্তৃপক্ষ আরো জানান, বর্তমানে রিক্সা, সিএনজি ও টমটম চালক কর্তৃক পর্যটক হয়রানি বৃদ্ধি পেয়েছে। একই সাথে দালালদের দৌরাত্ম্যও বৃদ্ধি পেয়েছে। রিক্সা, সিএনজি, টমটম চালক ও দালালরা বাস টার্মিনাল থেকে পর্যটকদের প্রলোভনে ফেলে কমিশনের ভিত্তিতে নির্দিষ্ট কিছু হোটেলে তোলে দেয়। পর্যটকদের কাছ থেকে ওই হোটেলগুলো গলাকটা রুম ভাড়া আদায় করছে। এতে পর্যটকেরা আর্থিক ও শারীরিকভাবে হয়রানি হচ্ছে। যার ফলে পর্যটকেরা কক্সবাজার বিমুখও হচ্ছে।
অন্যদিকে অধিকাংশ হোটেল দালালের আশ্রয় না নেয়া হোটেলগুলো পর্যটক না পেয়ে আর্থিক দৈন্যদশায় পতিত হচ্ছে। এতে তারা কর্মচারীদের বেতন পর্যন্ত দিতে পারছে না। সর্বোপরি হোটেল ব্যবসায়ীদের শত শত কোটি টাকার অনিশ্চয়তা দেখা দিয়েছে। এর থেকে পরিত্রাণ পেতে প্রশাসনের হস্তক্ষেপ চেয়েছে হোটেল মোটেল ও গেস্টহাউজ মালিকেরা।

উক্ত সংবাদ সম্মেলনে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন হোটেল মোটেল ও গেস্টহাউজ মালিক সমিতির উপদেষ্টা ও কক্সবাজার সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি আবু তাহের চৌধুরী। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সিনিয়র সাংবাদিক প্রিয়তোষ পাল পিন্টু ও এড. আয়াছুর রহমান। হোটেল মোটেল ও গেস্টহাউজ মালিক সমিতির পক্ষে উপস্থিত ছিলেন ভারপ্রাপ্ত সভাপতি আলহাজ্ব শফিকুর রহমান কোম্পানি। উপস্থাপনায় ছিলেন হোটেল কর্মকর্তা-কর্মচারী এসোসিয়েশনের সভাপতি কলিম উল্লাহ।

সর্বশেষ সংবাদ

বর্তমান শাসনামলে খেলাপি ঋণ সবচেয়ে বেশি বেড়েছে: মেনন

সকল মানুষের কাছে চিরকাল স্মরণীয় হয়ে থাকবেন কবি আল মাহমুদ

নুসরাত হত্যাকারিদের দ্রুত শাস্তি দাবী পূজা উদযাপন পরিষদের

খরুলিয়ার জমি সংক্রান্ত বিরোধের ঘটনাস্থল পরিদর্শনে এমপি কমল

চকরিয়ায় সড়ক দুর্ঘটনায় এনজিও কর্মী নিহত

পেকুয়ায় কাছারীমোড়া সাহিত্যকেন্দ্রের উদ্বোধন

বাংলাদেশ সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির দেশ হিসেবে দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে -ধর্ম প্রতিমন্ত্রী

শৃংখলা মেনে চললে যানজটের পাশাপাশি দুর্ঘটনাও কমে আসবে -সুপার ইকবাল হোসাইন

শ্রীলঙ্কা হামলায় আইএসের বুনো উল্লাস

শ্রীলঙ্কায় হামলার পেছনে ‘ন্যাশনাল তৌহিদ জামাত’

চট্টগ্রামে আসামি ধরতে গিয়ে গোলাগুলিতে আহত ৬ পুলিশ

মক্কা থেকে হারিয়ে গেল কক্সবাজারের সাদ

আল্লাহর কসম খেয়ে বলছি মাদকের সাথে আমি জড়িত নই- দিদার বলী

জিন তাড়ানোর বাহানায় যৌন সম্পর্ক গড়তো সেই পিয়ার

নুসরাত হত্যাকাণ্ডে অভিযুক্ত রুহুল আমিনের উত্থানের নেপথ্যে

বেনাপোল বন্দরের নির্মান কাজের চুরি যাওয়া রড উদ্ধার

অবশেষে আলোর মুখ দেখতে যাচ্ছে স্থানীয়করণের বিষয়টি

বঙ্গবন্ধু শিশু কিশোর মেলার চিত্রাংকনে ১ম তাসনিয়া হাসান তাহি

দেশ সেরা কনটেন্ট নির্মাতা হয়েছেন আলীকদমের উচাচিং

সেফুদার বিরুদ্ধে অস্ট্রিয়ায় মামলা