সংবাদদাতা:

কক্সবাজার সদরের ইসলামপুর নতুন অফিস বাজার এলাকায় গিয়াস উদ্দিন (৩৫) নামে মাদক ব্যবসায়ী গনধোলাইর শিকার হয়েছে।

সোমবার বিকালে মদ বিক্রি করতে গেলে সে গণপিটুনির শিকার হয়।

মাদক ব্যবসায়ী গিয়াস উদ্দিন খুটাখালী ইউনিয়নের ফুলছড়ি শিয়াপাড়া এলাকার বাসিন্দা।

তবে, তাকে আটক রেখে পুলিশে দেয়ার আগেই স্থানীয় প্রভাবশালীরা ছিনিয়ে নিয়ে যায় বলে প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছে।

ঈদগাঁও পুলিশ তদন্তকেন্দ্রের ইনচার্জ এসআই মোঃ খাইরুজ্জামান এ বিষয়ে কোন তথ্য তার কাছে যায়নি বলে জানান।

সুত্র জানায়, খুটাখালী শিয়াপাড়া এলাকার চিহ্নিত সন্ত্রাসী, চাঁদাবাজ, জুয়াড়ী ও মাদক ব্যবসায়ী ইমাম শরীফ প্রকাশ টুয়াইয়া, জসিম উদ্দিন, আবদুর রশিদ প্রকাশ পেটান, এনাম, ফারুক, মিনহাজ উদ্দিন, হেলাল উদ্দিন, সাহাব উদ্দিন, গিয়াস উদ্দিনসহ একটি সিন্ডিকেট ইসলামপুরের ৫ নং ওয়ার্ডভুক্ত জুমনগর এলাকার সরকারী বনভূমিতে আস্তানা গড়ে দীর্ঘদিন মদ, জুয়াসহ নানা অপরাধকর্ম চালিয়ে আসছে।

গত শুক্রবার (২১ জুলাই) দুপুরে দুইটি আস্তানা গুড়িয়ে দেয় এলাকাবাসী। এ ঘটনায় মাদকসেবীরা প্রকাশ্যে গুলিবর্ষণে এলাকার ৩ জন মারাত্নক আহত হয়। কিন্তু উল্টো স্থানীয় নিরীহ ১৮ জনের বিরুদ্ধে চকরিয়া থানায় মামলা করে জুয়াড়ী ও মাদক ব্যবসায়ীরা। (মামলা নং জিআর-৩৮৯/১৭)।

এদিকে মাদক ব্যবসায়ীদের গুলিবর্ষণ ও হামলার ঘটনায় এজারহার নামীয় ৭জনসহ আরো ৫/৬ জনের বিরুদ্ধে কক্সবাজার সদর মডেল থানায় মামলা দায়ের করেন ইসলামপুর কৈলাশেরঘোনা এলাকার ছৈয়দ আলমের ছেলে আবদুশ শুক্কুর। মামলা নং-জিআর ৭৬১/১৭।

এ মামলার এজাহারনামী আসামীরা হচ্ছে- হেলাল উদ্দিন, আবদুর রশিদ প্রকাশ পেটান, ইমাম শরীফ প্রকাশ টুয়াইয়া, এনাম, মিনহাজ উদ্দিন,  সাহাব উদ্দিন, গিয়াস উদ্দিন।

 

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •